টলিউড নায়কদের কার কত পারিশ্রমিক জানেন কি?

বিবিধ বিনোদন 21 Oct 2018 at 4:43pm 707
Googleplus Pint
টলিউড নায়কদের কার কত পারিশ্রমিক জানেন কি?

কলকাতার অভিনেতারা ঠিক কত টাকা পান তা নিয়ে খুব ধোঁয়াশা রয়েছে। বাজার চলতি কিছু ওয়েবসাইট নিজেদের মনগড়া হিসেব বসিয়ে দেন। কোথাও বলা হয় জিত ছবি পিছু নেন ৫০ লক্ষ টাকা, কোথাও বলা হয় জিতের রেট ছবি প্রতি ১ কোটি টাকা। কিন্তু সঠিক হিসেব ঠিক কী! আমরা খোঁজ নিলাম টলিউড ইন্ডাস্ট্রি-র সঙ্গে জড়িত বেশ কিছু মানুষের। তারা প্রত্যেকেই বলছেন, টলিউডে অভিনেতা-অভিনেত্রীদের পারিশ্রমিকটা একেবারে কোনও ফিক্সড থাকে না।

১০) সাহেব চট্টোপাধ্যায় (আনুমানিক পারিশ্রমিক-৮ লক্ষ/প্রতি সিনেমা)

ফেলুদা-র তোপসে এখন প্রথম সারির নায়কদের ছোঁব ছোঁব করছেন।

৯) পরমব্রত চট্টোপাধ্যায় (আনুমানিক পারিশ্রমিক-১৫ লক্ষ/প্রতি সিনেমা)

দুর্দান্ত অভিনেতা পরমব্রতকে টলিউডে অন্য ধারার সিনেমার প্রথম সারির নায়ক বলাই যায়।

৮) খরাজ মুখোপাধ্যায়

বাঙালীর অতি পছন্দের খরাজ মুখোপাধ্যায়ও সিনেমায় পেতে বেশ মোটা টাকা দিতে হয়। ১৯৮০ সালে হুলস্থুল সিনেমার মাধ্যমে টলিউডে পা রাখেন। তারপর প্রায় তিন যুগ ধরে টলিউডে আলো করে আছেন। পাতালঘর, বাই বাই ব্যাংকক, কাহানী, নেমসেক, এক্সিডেন্ট, মুক্তোধারা, স্পেশাল ২৬, জাতিস্মর সহ অসংখ্য চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি রামপ্রসাদ বণিকের ছাত্র ছিলেন। বাণিজ্যিক এবং স্বাভাবিক অভিনয়ে তিনি দক্ষতা অর্জন করেছেন।। ২০১২ সালের কাহানী চলচ্চিত্রে তিনি ইনস্পেকটর চ্যাটার্জী চরিত্রে অভিনয় করেন। ২০০৪ সালে পাতালঘর চলচ্চিত্রের জন্য মুখার্জী বেঙ্গল ফিল্ম জার্নালিস্টস' অ্যাসোসিয়েশন - সেরা পুরুষ প্লেব্যাক পুরস্কার লাভ করেন।

৭)সব্যসাচী চক্রবর্তী

বাঙালির ফেলুদা। সেভাবে সিনেমা আর করেন না। কিন্তু দামু-র পটাই চোর, কিংবা পরিণীতার সেই রাশভারী নবীন রায়। সব্যসাচী চক্রবর্তী মানেই দুরন্ত অভিনয়। আর তাঁকে সিনেমায় পেতে প্রযোজকদের বেশ মোটা টাকা দিতে হয়। তবে সেটা বেশিরভাগ সময়ই ঠিক থাকে না।

৬) যীশু সেনগুপ্ত (আনুমানিক পারিশ্রমিক ৩৫ লক্ষ)

বেশ বড় নাম। দীর্ঘদিন ধরে টলিউডে সুনামের সঙ্গে কাজ করছেন। বলিউডের ছবিতেও সাফল্য পাচ্ছেন। ছোট পর্দাতেও
সফলতার সঙ্গে কাজ করেছেন।

৫) আবীর চট্টোপাধ্যায় (আনুমানিক পারিশ্রমিক ৪০ লক্ষ)

বেশ বড় নাম। দীর্ঘদিন ধরে টলিউডে সুনামের সঙ্গে কাজ করছেন। বলিউডের ছবিতেও সাফল্য পাচ্ছেন। ছোট পর্দাতেও
সফলতার সঙ্গে কাজ করেছেন। আবির তাঁর কর্মজীবন শুরু করেন বাংলা টেলিভিশনে। ২০০৯ সালে ক্রস কানেকশন ছবিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি বাংলা চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন। আবির বহু বাংলা টেলিভিশন ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন। সেগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রলয়.আসছে, রুপসী বাংলা, শাশুড়ি জিন্দাবাদ, খুঁজে বেড়াই কাছের মানুষ, বহ্নিশিখা, শুধু তোমারই জন্য, এক আকাশের নীচে ও জন্মভূমি। বাংলা শিশুসাহিত্যের দুই বিখ্যাত গোয়েন্দা চরিত্র ব্যোমকেশ বক্সী ও ফেলুদার ভূমিকাতেও অভিনয় করেছেন আবির।

৪) দেব

ভেঙ্কটেশ ফিল্মসের বাইরে দেবকে সিনেমায় নেওয়া যায় না। কারণ তিনি তাদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ। তাই দেবের পারিশ্রমিক অত্যন্ত গোপনীয়। তবে দিনরাত অ্যামাজনে পড়ে থাকার পারিশ্রমিক হিসেবে তিনি নাকি ১ কোটি টাকা পেয়েছেন। অবশ্য এসবই গোপন সূত্রের খবর। চাঁদের পাহাড়ের সাফল্যের আগে একটা সময় দেব ২৫ লক্ষ টাকাতেও সিনেমা করেছেন।

৩) জিত্॥ (৭৫ লক্ষের নিচে নয়)

ব্র্যান্ড জিত-এর মত একাকি বাজার গড়ার ক্ষমতা খুব কম জনেরই আছে। ভেঙ্কটেশ ফিল্মসের সঙ্গে আপোস না করে বেরিয়ে এসে জিত হয়তো দারুণ কিছু সাফল্য পাননি। ভেঙ্কটেশের ছায়ায় থাকলে হয়তো অনেক বড় হিট, পুরস্কার, ভাল পরিচালক পেতেন। তবে জিত্ এখনও নিজের ব্র্যান্ড ধরে রেখেচেন। শোনা যায় জিত নাকি ৭৫ লক্ষের নিচে কোনও সিনেমায় সাইন করেন না।

২) সৌমিত্র চ্যাটার্জি

ঘণ্টা পিছু পারিশ্রমিকের বিচারে সৌমিত্র চ্যাটার্জি সবচেয়ে বেশি টাকা পারিশ্রমিক দাবি করেন। পোস্ত সিনেমার জন্য তিনি নাকি বেশ মোটা টাকা পারিশ্রমিক নেন।

১) প্রসেনজিত (ছবি প্রতি এক কোটি)

ওয়ান অ্যান্ড অনলি বুম্বা দা। ইয়েতি অভিযানের জন্য নাকি এক কোটি টাকা পারিশ্রমিক পেয়েছেন। এখন বুম্বা দা-র রেট নাকি ছবি প্রতি এক কোটি টাকা।

সূত্রঃ ডেইলি হান্ট

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 0 - Rating 0 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)