দেশি চলচ্চিত্রে যত ভিনদেশি ভিলেন

সিনেমা জগৎ 20 Aug 2018 at 10:59am 700
Googleplus Pint
দেশি চলচ্চিত্রে যত ভিনদেশি ভিলেন

ইদানিং বেড়েছে ভিনদেশি ভিলেনদের আগমন। আসছে ঈদের ছবিতেও দেখা মিলবে আশিষ বিদ্যার্থীদের। যৌথ প্রযোজনা মানে তো ভিনদেশি ভিলেন থাকবেনই, এমনকি দেশি সিনেমাতেও আদিপত্য। এই ধারাটা যে গেল কয়েকবছরে শুরু হয়েছে এমনটা নয়। আশির দশকেও দেখা গেছে বেশ কয়েকজন বিদেশি ভিলেনদের। তেমনই কয়েকজনের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়া হল:

উৎপল দত্ত

যদিও তাঁর বাংলাদেশে জন্ম। ১৯২৯ সালের ২৯ মার্চ তিনি বরিশালে জন্মগ্রহণ করেন। মৃত্যু ১৯৯৩ সালের ১৯ অগাস্ট কলকাতায়। তিনি কলকাতাতেই স্থায়ীভাবে বসবাস করতেন। ১৯৮৫ সালে বাংলাদেশ- দুদেশের সে সময়কার জনপ্রিয় তারকাদের নিয়ে ‘অবিচার’ নির্মিত হয়। সৈয়দ হাসান ইমাম এবং বোম্বের শক্তি সামন্ত ছবিটি যৌথভাবে পরিচালনা করেন। হিন্দিতে ‘আরপার’ নামে মুক্তি পায় ‘অবিচার’। পশ্চিম বঙ্গে মুক্তি পায় ‘অন্যায় অবিচার’ নামে। মিঠুন, রোজিনা, নূতন, আহমেদ শরীফ অভিনীত ছবিটির অন্যতম আকর্ষণ ছিল উৎপল দত্ত। এক গ্রাম্য জোতদারের চরিত্রে তার অসাধারণ অভিনয় দর্শকরা দারুণ উপভোগ করেছিলেন।

শক্তি কাপুর

বলিউডের শক্তিশালী ভিলেন শক্তি কাপুরকেও দেখা গেছে বাংলা ছবিতে। ২০০০ সালে এফডিসিতে আসেন। শক্তি ঢাকার দুটি ছবিতে অভিনয় করেন। আজমল হুদা মিঠু পরিচালিত ‘এরই নাম দোস্তী’ এবং রায়হান মুজিব পরিচালিত ‘জামিন নাই’ ছবির মূল ভিলেন ছিলেন শক্তি কাপুর। প্রথম ছবিটিতে রিয়াজ ও শাবনূর অভিনয় করেছিলেন। দ্বিতীয় ছবিতে শাবনূরের বিপরীতে ছিলেন মাসুদ শেখ। সরাসরি বাংলাদেশি ছবিতে ভিনদেশি ভিলেন মূল চরিত্রে অভিনয় করা ছিল সেই প্রথম।

রজতাভ দত্ত

রজতাভ দত্ত এসেছিলেন সেই ২০১৪ সালে। স্বপন সাহা ও দেওয়ান নাজমুলের পরিচালনায় ‘সীমারেখা’ ছবির মাধ্যমে। ববিতা এ ছবিতে তার সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগ তোলেন। তবে ছবিটা খুব একটা আলোচনায় ছিল না। সে অর্থে বাংলাদেশে ভিলেন রুপে তাকে প্রথম দেখা যায় ‘অঙ্গার’ ছবিতে। যৌথ প্রযোজনার ‘ব্লাক’,‘নবাব’ আর সম্পূর্ণ বাংলদেশি প্রযোজনায় ‘বসগিরি’ ছবিতেও তিনি অভিনয় করেন।

আশিষ বিদ্যার্থী

এ সময়ে বাংলা ছবিতে আশিষ বিদ্যার্থীকে নিয়মিত দেখা যাচ্ছে। উচ্চ পারিশ্রমিক নিয়ে থাকেন তিনি। মূলত হিন্দী ও ভারতের দক্ষিণী ছবির নামজাদা ভিলেন তিনি। কলকাতা বাংলা সিনেমাতেই বছর দশকের উপর অভিনয় করছেন। সে হিসেবে বাংলাদেশে আসেন ২০১৫ সালে। যৌথ প্রযোজনার ‘অগ্নি টু’ ছবির মাধ্যমে আগমন। যৌথ প্রযোজনার ‘অঙ্গার’, ‘ব্লাক’,‘হিরো ৪২০’,‘রক্ত’ ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। খ্যাতনামা এই ভিলেলেন মা বাঙালি বংশোদ্ভুত রেবা বিদ্যার্থী।

রাহুল দেব

বলিউডের পরিচিত ভিলেন রাহুল। চুটিয়ে তামিল-তেলেগু ছবি করেছেন। ভিলেন হিসেবে যথেষ্ট যোগ্য অভিনেতা রাহুল দেব। তাকে যৌথ প্রযোজনার ছবিতে প্রথম অভিনয় করতে দেখা যায় জয়দীপ মুখার্জি পরিচালিত ‘শিকারী’ ছবিতে। সেখানে শাকিবের সঙ্গে লড়েছেন তিনি।

প্রদীপ রাওয়াত

প্রদীপ মূলত দক্ষিণী ছবিতে শক্তিশালী ভিলেন হিসেবে অভিনয় করছেন। ‘গজনী’র দুর্দর্ষ ভিলেন প্রদীপ রাওয়াতের বাংলাদেশে আত্মপ্রকাশ যৌথ প্রযোজনার হাত ধরে। অবশ্য তিনি বাংলাদেশে শুটিংও করেননি। ‘হিরো ৪২০’ তার অভিনীত প্রথম ছবি।

ইয়াশপাল শর্মা

‘হাজার চুরাশি কি মা’ চলচ্চিত্রে কমরেড লাল্টু। ২০০১ সালে অস্কারে ভারতের চলচ্চিত্র হিসেবে আলোচিত আমির খানের বিখ্যাত সিনেমা ‘লগন’ এর বিশ্বাসঘাতক ব্যাটসম্যান লখার মতো চরিত্র করেছেন ইয়াশপাল। প্রথমবারের মত বাংলাভাষী চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। তৌকীর আহমেদ পরিচালিত ‘ফাগুন হাওয়া’ চলচ্চিত্রে পাকিস্তানি পুলিশের চরিত্রে অভিনয় করছেন তিনি। -বাংলা ইনসাইডার

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 0 - Rating 0 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)