ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারযুক্ত নতুন ফোন আনল ওয়ালটন

মোবাইল ফোন রিভিউ 17th Dec 17 at 5:37pm 715
Googleplus Pint
ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারযুক্ত নতুন ফোন আনল ওয়ালটন

ফোনের তথ্য সুরক্ষা। বর্তমান সময়ের অতি কাঙ্ক্ষিত বিষয়। সবাই চান ব্যবহৃত ফোনটি অযাচিত কারো হাতে পড়লেও যেন এর তথ্য সুরক্ষিত থাকে। আর তাই ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানারযুক্ত সাশ্রয়ী মূল্যের নতুন ফোন আনল ওয়ালটন। ‘প্রিমো এইচএম৪’ মডেলের এই ফোনের দাম মাত্র ৭ হাজার ৮৯০ টাকা। সুদৃশ্য ফোনটি মিলছে কালো ও সোনালি এই দুটি ভিন্ন রঙে।

ওয়ালটনের সেল্যুলার ফোন গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর আরিফুল হক রায়হান জানান, মেটাল ডিজাইনের ফোনটি দেখতে বেশ আকর্ষণীয়। এতে ব্যবহার করা হয়েছে ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস ডিসপ্লে প্যানেল। ফলে স্ক্রিন টাচে গ্রাহক স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন।

ফোনটির উচ্চগতি নিশ্চিত করতে রয়েছে ১.৩ গিগাহার্জ গতির কোয়াড কোর প্রসেসর। উন্নতমানের গেমিং ও স্পষ্ট ভিডিওর অভিজ্ঞতা দিতে গ্রাফিক্স হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে মালি-৪০০। এতে রয়েছে ১ জিবি দ্রুতগতির ডিডিআর৩ র‌্যাম। ফলে বিভিন্ন অ্যাপস ব্যবহার, ইন্টারনেট ব্রাউজিং, থ্রিডি গেমিং এবং ভিডিও লোড ও ল্যাগ-ফ্রি ভিডিও স্ট্রিমিং হবে অনায়াসেই। আছে ৮ গিগাবাইট অভ্যন্তরীণ মেমোরি। যা মাইক্রো এসডি কার্ডের মাধ্যমে ৬৪ গিগাবাইট পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। ফলে অনেক বেশি ছবি, ভিডিও, ডকুমেন্টস ইত্যাদি সংরক্ষণ করা যাবে।

‘প্রিমো এইচএম৪’ মডেলের নতুন এই স্মার্টফোনের উভয় দিকে রয়েছে বিএসআই সেন্সরযুক্ত ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা। উভয় প্রান্তে এলইডি ফ্ল্যাশ থাকায় অন্ধকার বা অল্প আলোতেও স্পষ্ট ছবি, সেলফি বা ভিডিও তোলা সম্ভব হবে। ফ্রন্ট কিংবা রিয়ার- উভয় ক্যামেরায় ফুল এইচডি ভিডিও ধারণ করা যাবে। ফলে গ্রাহকের রঙিন ও স্মরণীয় সব মুহূর্ত থাকবে ফ্রেমবন্দি।

ক্যামেরায় নরমাল মোড ছাড়াও প্রফেশনাল মোড, ফেস বিউটি, এইচডিআর, প্যানোরামা এবং নাইট মোডে ছবি তোলার সুযোগ থাকছে। রয়েছে ফেস ডিটেকশন, ডিজিটাল জুম, সেলফ টাইমার, অটো-ফোকাস, টাচ-ফোকাস ও টাচ-শট।

এই স্মার্টফোনে ব্যবহৃত হয়েছে ৫.৫ ইঞ্চির আইপিএস প্রযুক্তির এইচডি ডিসপ্লে। ফলে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার এবং ভিডিও দেখা, গেম খেলা, বই পড়া বা ইন্টারনেট ব্রাউজিং হবে প্রাণবন্ত।

দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপ রয়েছে ৩৮০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের লিথিয়াম পলিমার ব্যাটারি। ৮.৪ মিমি স্লিম ফোনটি বেশ হালকা। ব্যাটারিসহ এর ওজন মাত্র ১৬৮.৩ গ্রাম।

দুটি সিম ব্যবহারের সুবিধাসম্পন্ন ফোনটি থ্রিজি নেটওয়ার্ক সমর্থন করে। স্মার্টফোনটি অ্যান্ড্রয়েড নূগাট ৭.০ অপারেটিং সিস্টেমে পরিচালিত। কানেক্টিভিটির জন্য আছে ওয়াই-ফাই, ব্লুটুথ ভার্সন ৪, ইউএসবি ২, ল্যান হটস্পট, ওটিএ ও ওটিজি সুবিধা।

অন্যান্য ফিচারের মধ্যে রয়েছে রেকর্ডিং সুবিধাসহ এফএম রেডিও, ফুল এইচডি ভিডিও প্লে-ব্যাক, মিরা ভিশন টেকনোলজি, ডুরা স্পিড, মাল্টি উইন্ডো, নোটিফিকেশন লাইট ইত্যাদি।

উল্লেখ্য, দেশের সকল ওয়ালটন প্লাজা ও ব্র্যান্ড আউটলেটে ০% ইন্টারেস্টে ৬ মাসের ইএমআই সুবিধায় কেনা যায় সব মডেলের ওয়ালটন স্মার্টফোন। একই সঙ্গে ১২ মাসের কিস্তি সুবিধায়ও কেনার সুযোগ থাকছে। সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবার জন্য রয়েছে দেশব্যাপী বিস্তৃত সার্ভিস নেটওয়ার্ক।

এক নজরে. . .
মডেল : ওয়ালটন প্রিমো এইচএম৪

দাম : ৭,৮৯০ টাকা

ডিসপ্লে : ৫.৫ ইঞ্চি এইচডি আইপিএস, ২.৫ডি কার্ভড গ্লাস

প্রসেসর : ১.৩ গিগাহার্জ কোয়াড কোর

গ্রাফিক্স : মালি-৪০০

র‌্যাম : ১ জিবি ডিডিআর৩

স্টোরেজ : ৮ জিবি, মাইক্রো এসডি ৬৪ জিবি

ফ্রন্ট ক্যামেরা : বিএসআই ৮ মেগাপিক্সেল, এলইডি ফ্ল্যাশ

রিয়ার ক্যামেরা : বিএসআই ৮ মেগাপিক্সেল, এলইডি ফ্ল্যাশ

ব্যাটারি : ৩,৮০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার লি-পলিমার

অপারেটিং সিস্টেম : অ্যান্ড্রয়েড নূগাট ৭.০

অন্যান্য : ফিঙ্গারপ্রিন্ট, মাল্টি উইন্ডো, মিরা ভিশন টেকনোলজি, ডুরা স্পিড, নোটিফিকেশন লাইট।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 14 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)