মিলেছে আরো একটা সৌরমণ্ডল!

বিজ্ঞান জগৎ 16th Dec 17 at 7:37pm 1,174
Googleplus Pint
মিলেছে আরো একটা সৌরমণ্ডল!

আমাদের সৌরমণ্ডলের মতোই আরো একটি সৌরমণ্ডল আছে ব্রহ্মাণ্ডে। চেহারায় যা অবিকল আমাদের মতোই। আমাদের সৌরমণ্ডলে যেমন বুধ থেকে নেপচুনকে নিয়ে রয়েছে আটটি গ্রহ (প্লুটো হালে ‘গ্রহ’-এর শিরোপা খুইয়েছে)।

জানা গেছে, চেহারায় অবিকল আমাদের মতো সেই সৌরমণ্ডলেও গ্রহের সংখ্যা আট। শুধু তাই নয়, আমাদের সৌরমণ্ডলে গ্রহগুলো ঠিক যেভাবে একের পর এক সাজানো, ২ হাজার ৪৪৫ আলোকবর্ষ দূরে, ‘ড্রাকো’ নক্ষত্রপুঞ্জে থাকা সেই সৌরমণ্ডলের আটটি গ্রহ রয়েছে একই ভাবে।

বুধ, মঙ্গল, শুক্র, পৃথিবীর মতো ছোট চেহারার পাথুরে গ্রহগুলো যেমন আমাদের সৌরমণ্ডলে রয়েছে সূর্যের কাছাকাছি আর বৃহস্পতি, শনি, ইউরেনাস ও নেপচুনের মতো বড় চেহারার গ্যাস ও বরফে ভরা গ্রহগুলো রয়েছে সূর্যের থেকে দূরে।

সদ্য আবিষ্কৃত সৌরমণ্ডলের আটটি গ্রহ ঠিক সেভাবেই রয়েছে। এর আগে আমাদের সৌরমণ্ডলের মতো অবিকল চেহারার আর কোনো নক্ষত্রমণ্ডলের হদিশ মেলেনি।

বৃহস্পতিবার নাসার সদর দফতরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এসব তথ্য জানানো হয়।

নাসার অ্যাস্ট্রোফিজিক্স ডিভিশনের জ্যোতির্বিজ্ঞানী পল হার্ৎজ বলেছেন, অবিকল আমাদের সৌরমণ্ডলের মতো চেহারার এই সৌরমণ্ডলে সাতটি গ্রহের হদিস আগেই মিলেছিল। এবার জানা গেল, সেখানে রয়েছে অষ্টম গ্রহ। যার নাম ‘কেপলার-৯০-আই’। এই গ্রহটিকে দেখতে অবিকল পৃথিবীর মতো। পাথুরেও। সেটি তার নক্ষত্রকে পাক মারে ১৪.৪ পার্থিব দিনে।

তবে সেটি তার নক্ষত্রের (কেপলার-৯০) বেশি কাছে আছে বলে তার গা পুড়ে যাচ্ছে অনেক বেশি তাপে। তাপমাত্রা অন্তত ৮০০ ডিগ্রি ফারেনহাইট।

নাসার তরফ থেকে জানানো হয়েছে, যেহেতু এই সৌরমণ্ডলের চেহারা অবিকল আমাদের মতোই, সেখানকার আটটি গ্রহ সাজানো হয়েছে আমাদের সৌরমণ্ডলের মতোই, তাই সেই মুলুকে প্রাণের হদিস পাওয়ার সম্ভাবনা জোরালো হয়ে উঠল।

শুধু তাই নয়, ওই সৌরমণ্ডলের আরেকটি গ্রহ ‘কেপলার-৯০-এইচ’ তার নক্ষত্রের থেকে ঠিক সেই দূরত্বেই রয়েছে, আমাদের পৃথিবী সূর্য থেকে রয়েছে যতটা দূরে। এই গ্রহটিতে জল তরল অবস্থায় থাকতে পারে বা পৃথিবীর মতো পুরু বায়ুমণ্ডলও থাকতে পারে। ফলে, প্রাণের সৃষ্টি বা তার টিকে থাকার পক্ষে সহায়ক হয়ে উঠতে পারে এই গ্রহটির পরিবেশ। কেপলার টেলিস্কোপ আমাদের সৌরমণ্ডলের বাইরে যে গ্রহগুলোর সন্ধান পেয়েছে।

নাসার তরফ থেকে আরো জানানো হয়েছে, আরো একটি ভিনগ্রহের হদিস মিলেছে প্রায় আমাদের সৌরমণ্ডলের চেহারারই আরো একটি নক্ষত্রমণ্ডলের। যার নক্ষত্রের নাম ‘কেপলার-৮০’ আর সেই সৌরমণ্ডলে যে ভিন গ্রহটির হদিস মিলেছে সম্প্রতি, তার নাম ‘কেপলার-৮০-জি’।

এই ভিনগ্রহটি ওই সৌরমণ্ডলের ষষ্ঠ গ্রহ। ফলে আগামী দিনে ওই সৌরমণ্ডলে আমাদের মতোই আটটি বা তার বেশি গ্রহের হদিস মিললেও মিলতে পারে। এ বছরের গোড়ার দিকে ‘ট্রাপিস্ট’ নক্ষত্র মণ্ডলের হদিশ মিলেছিল, যেখানে গ্রহের সংখ্যা সাত। এবং তাতে পৃথিবীর জল বা বায়ুমণ্ডল আছে, এমন অন্তত তিনটি গ্রহের হদিস মিলেছে।

ভিনগ্রহ খুঁজতে এবং ভিনগ্রহে প্রাণের সন্ধান পেতে ২০০৯ সালে নাসা মহাকাশে পাঠিয়েছিল কেপলার স্পেস টেলিস্কোপ। সেই টেলিস্কোপ ২০১৩ সাল পর্যন্ত পৃথিবীর মতো ‘বাসযোগ্য’ প্রায় আড়াই হাজার ভিনগ্রহ আবিষ্কার করেছে। তার আগেও প্রচুর ভিনগ্রহ আবিষ্কৃত হয়েছে। তাদের নিয়ে আমাদের জানা ভিন গ্রহের সংখ্যা প্রায় হাজার চারেক।

কিন্তু, এতদিন কোনো ভিনগ্রহের নক্ষত্রমণ্ডলেই আমাদের সৌরমণ্ডলের মতো আটটি গ্রহের সন্ধান মেলেনি। এই আবিষ্কারটি সম্ভব হয়েছে গুগলের মেশিন লার্নিং পদ্ধতির সাহায্যে, যার নেতৃত্বে রয়েছেন গুগলের সিনিয়র সফটওয়ার ইঞ্জিনিয়ার ক্রিস্টোফার শ্যালু ও টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের সাগান পোস্ট ডক্টরাল ফেলো অ্যান্ড্রু ভ্যানডারবার্গ।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 31 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)