আপনার দেখা প্রথম প্রাণীটিই বলে দেবে আপনি মানুষটা কেমন!

লাইফ স্টাইল 7th Nov 17 at 2:04pm 520
Googleplus Pint
আপনার দেখা প্রথম প্রাণীটিই বলে দেবে আপনি মানুষটা কেমন!

একজন মানুষের ব্যক্তিত্ব গড়ে ওঠে বেশ কিছু চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য নিয়ে। যার ফলে প্রতিটি ভিন্ন মানুষের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য ও গুণাবলী ভিন্ন হয়ে থাকে। ভিন্নধর্মী গুণাবলি ও চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের ফলে প্রতিটি মানুষ হয়ে থাকেন স্বকীয়। একজন মানুষের একদম প্রাথমিক বৈশিষ্ট্যের সাথে তার আশেপাশের মানুষের বৈশিষ্ট্য কখনো মিলবে না। অনেক ক্ষেত্রে কিছু মিল পাওয়া গেলেও পুরোপুরিভাবে কখনোই মিলবে না। প্রতিটি মানুষ তার আচরণ, গুণ, পছন্দ-অপছন্দ, বিশ্বাসে আলাদা।

কোন একটা পরিস্থিতিতে একজন মানুষ কীভাবে প্রতিক্রিয়া করেন সেটার উপরে নির্ভর করেও তার চরিত্রের ধরণ নির্ধারণ করা যায়। মজার ব্যাপার হল, একজন মানুষ অবচেতনভাবেই তার মনকে সেই বস্তুটি দেখতে সাহায্য করে থাকে যেটা তার চরিত্র ও চারিত্রিক গুণাবলীর সাথে মিলে যায়! এই মনস্তাত্ত্বিক ট্রিক একজন মানুষের ভেতরের গুণাবলী খুব দারুনভাবে প্রকাশ করতে সাহায্য করে।

উপরের ছবিতে একইসাথে অনেকগুলো প্রাণীর ছবি দেখানো হয়েছে। ছবিটি দেখার সাথে সাথে সর্বপ্রথম যে প্রাণীটি আপনার চোখে ধরা পড়বে, সেটাই আপনার চারিত্রিক গুণাবলী ও বৈশিষ্ট্য প্রকাশ করে থাকে। মিলিয়ে দেখুন তো, আপনার সাথেও মিলে যায় কিনা!

ঘোড়া

যদি আপনি সবার প্রথমে ঘোড়া দেখে থাকেন তবে আপনি সত্যিকার অর্থেই অনেক বেশি উচ্চাভিলাষী। একইসাথে উন্মত্ত, স্বাধীন, সাফল্য পাবার জন্য উন্মুখ এবং যেকোন অবস্থাতেই আপনি স্বাধীনচেতা। আপনি কখনোই সৎভাবে কাজ করতে লজ্জাবোধ করেন না। কোন ধরণের সমস্যা দেখলে পালিয়ে না গিয়ে বরং সেটা সমাধান করার প্রতি মনোনিবেশ করেন। আপনি নিজের সত্ত্বার সাথে সংযুক্ত থাকেন বলে সবসময় অনেক স্পষ্টবাদী। আপনার ব্যক্তিত্বের ধরণও একই রকম- আদর্শবাদী এবং সৎ।

গৃহপালিত মুরগী

যদি সবার প্রথমে আপনার চোখে মুরগীর ছবি ধরা পরে তবে আপনার প্রাথমিক চারিত্রিক গুণাবলী হচ্ছে আপনি অনেক অধ্যাবসায়ী। আপনি খুব দ্রুতগামী, স্মার্ট, পরিশ্রমী। মুরগী তার ছোটখাটো শরীর নিয়েও হিংস্র ধরণের একটি প্রাণী। আপনিও ঠিক তেমনটাই। চোখের দেখায় দেখতে ভয়ঙ্কর মনে না হলেও প্রয়োজনের সময়ে যুদ্ধ করতে আপনি প্রস্তুত থাকেন।

কাঁকড়া

“বাইরে অনেক বেশী শক্ত হলেও ভেতরে একদম নরম।” কাঁকড়ার মতো আপনার নিজের মাঝেও একই রকম লক্ষণ প্রকাশ পায় যদি সবার প্রথমে আপনি কাঁকড়া দেখে থাকেন। একইসাথে কাঁকড়া চূড়ান্ত বিশ্বস্ত হিসেবেও পরিচিত। এটা বলার কোন প্রয়োজন নেই। আপনি যদি নিজের দিকে একবার খেয়াল করেন তবে দেখতে পাবেন আপনি নিজেও সকল ক্ষেত্রে সবসময় বিশ্বস্ত ছিলেন। আপনি সবসময় নিজের পূর্বে প্রিয়জনদের চাহিদাকে বেশী গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। একইসাথে আপনি কখনো দুঃস্বপ্নেও ভালোবাসার মানুষের সাথে বিশ্বাসঘাতকতার কথা চিন্তা করতে পারেন না।

ম্যান্টিস

প্রেইং ম্যান্টিস হলো বুদ্ধিবৃত্তি ও ধৈর্যের বাহক। ম্যান্টিস ঘন্টার পর ঘন্টা তার শিকারের জন্য চুপচাপ বসে থাকতে পারে এবং কোন ধরনের পূর্বাভাস ছাড়াই শিকার করতে পারে। আপনি যদি সবার প্রথমে একটি ম্যান্টিস দেখে থাকেন তবে আপনার ইন্দ্রিয় অনেক বেশী দৃঢ় ও প্রবল। আপনার মনের কথা দ্বারাই আপনি নিজেকে সবসময় চালিত করেন এবং তার সংস্পর্শেই সবসময় থাকেন। আপনি সবসময় আপনার মনের কথা অনুসারে চলেন এবং বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই আপনি যেটা চান সেটাই পেয়ে থাকেন। নিজের রাজ্যে আপনি নিজেই রাজা, ঠিক ম্যান্টিসের মতো! আপনার ভেতরে সুপ্ত অবস্থায় লড়াকু মনোভাব বজায় থাকে সবসময়।

নেকড়ে

নেকড়ে হলো একাকী যোদ্ধা যে তার দলবল নিয়ে পথ চলে। নেকড়েরা যদিও তার দল নিয়ে থাকার জন্যে পরিচিত, কিন্তু তারা খুবই একাকী জন্তু। একাকী, বন্য, ভীতিহীন এবং হিংস্র। যদি আপনি সবার প্রথমে নেকড়ে দেখে থাকেন তবে সেক্ষেত্রে অনেক বেশী সম্ভবনা রয়েছে যে আপনার স্বত্বা একটি নেকড়ের মতো হিংস্র এবং ভীতিহীন। আপনি অনেক মানুষের মাঝে থাকলেও আপনার দৃঢ় ব্যক্তিত্বের কারণে আপনাকে আলাদাভাবে চিহ্নিত করা যায়। নেকড়ে হবার ফলে একইসাথে অনেক বেশী উল্লাসজনক ও একাকী পথচলার অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হয়। তবে আপনার চারিত্রিক বৈশিষ্ট এমনভাবে তৈরি যে আপনি সবকিছু খুব দারুনভাবে সামলে নিতে পারেন।

কুকুর

বিশ্বস্ত, সাহসী, সংরক্ষনশীল এবং নিঃস্বার্থ- সকলেই জানে যে এই গুণগুলো শুধুমাত্র একটি কুকুরের সাথেই মেলে। তবে খুব কম সংখ্যাক মানুষ আছে যাদের চারিত্রিক গুণ এই সকল গুণের সাথে পুরোপুরিভাবে মিলে যায়। যদি আপনি সকল কিছুর মাঝে সর্বপ্রথম কুকুর দেখে থাকেন তবে আপনাকে আশ্বস্ত করা যায় যে, উপরের সকল প্রাণীর প্রায় সকল বৈশিষ্ট আপনার মাঝে বিদ্যমান। আপনি একইসাথে বিশ্বস্ত কিন্তু হিংস্র, নিঃস্বার্থ এবং স্নেহময়, সংরক্ষনশীল এবং আমুদী ধরণের মানুষ। পৃথিবীর সবচেয়ে বিরল ও দারুণ ধরণের চারিত্রিক গুণাবলীর মানুষ আপনি। কোন সন্দেহ নেই, আপনার পরিচিত সকলের কাছেই আপনি অনেক বেশী প্রিয় একজন মানুষ।

ঈগল

বন্য, স্বাধীনচেতা এবং আকাশে ওড়ার জন্যেই জন্ম নেওয়া ঈগল প্রকৃতির অন্যতম শিকারি একটি প্রাণী। আপনি যদি সবার প্রথমে ঈগলকে খেয়াল করেন তবে আপনি নিজের লক্ষ্য ও নিজের ইচ্ছার প্রতি পরিপূর্ণভাবে দৃষ্টি নিবন্ধ করে থাকেন। ঠিক একইভাবে আপনি যদি কোন কিছু উপরে নিজের লক্ষ্য নির্ধারন করে থাকেন এবং আপনি কোন কিছু পেতে চান বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে ফেলেন, তবে যেকোন ভাবেই হোক আপনি নিজের গন্তব্যে পৌছাবেন। সেটা অন্য কারোর জন্য অনেক অকল্পনীয় হলেও আপনি সেখানে যেকোন মূল্যে পৌছানোর চেষ্টা করেন।

প্রজাপতি

সৌন্দর্য এবং বদলের প্রতীক হিসেবে প্রজাপতি খুবই পরিচিত। কোকুন থেকে এটি প্রকৃতির অন্যতম সুন্দর সৃষ্টিতে রূপান্তরিত হয়। যদি আপনি সকল কিছু মাঝে সর্বপ্রথম প্রজাপতি দেখে থাকেন তবে আপনিও প্রজাপতির মতোই বৈশিষ্ট্য বহন করেন। আপনি অনেক নম্র, পরিবর্তনশীল এবং প্রয়োজন অনুযায়ী আপনি নিজেকে বদলে নিতে পারেন। একইসাথে সময়োপযোগী হিসেবে নিজেকে আবার আগের মতো পূর্বের অবস্থাতেও নিয়ে যেতে পারেন। জীবনের কোন না কোন মুহুর্তে নিজেকে খুব বাজে পরিস্থিতির (কোকুন অবস্থা) মুখোমুখি হতে হবে হয়তো। তবে আপনার মাঝে এমন এক ব্যক্তিত্ব রয়েছে যার ফলে আপনি সকল সমস্যা থেকে বের হয়ে এসে সুন্দর একজন মানুষ হিসেবে সকলের সামনে নিজেকে উপস্থাপন করতে পারবেন।

ঘুঘু

শান্তি এবং ভালোবাসার অন্যতম প্রতীক ও প্রকৃতির অন্যতম অসাধারণ এবং চমৎকার সৃষ্টি হলো এই ঘুঘু। সবার প্রথমে আপনি যদি ঘুঘু দেখে থাকেন তবে বলতেই হয় আপনি অনেক জ্ঞানী। একইসাথে আপনি শান্ত, ধৈর্যশীল, যত্নবান এবং শান্তিপ্রিয়। যদিও জীবনে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা এবং ধরে রাখা অন্যতম কঠিন একটি কাজ, তবে আপনি খুব দারুনভাবেই নিজের নিজের চারপাশে ও নিজের মাঝে শান্তি ধরে রাখতে পারেন। সবচাইতে দারুণ ব্যাপারটি হলো, অন্যের জন্য আপনি জলজ্যান্ত আশার প্রতীক।

সূত্র: Meaw

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 15 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)