স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায় পালং শাক

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 8th Oct 17 at 9:42pm 196
Googleplus Pint
স্ট্রোকের ঝুঁকি কমায় পালং শাক

বিশ্বব্যাপী একটি গবেষণা করা হয়েছিল। তাতে প্রমাণ মিলেছে পালং শাকের শরীরে রয়েছে নানান উপকারি উপদান, যা দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটানোর পাশাপাশি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে, পেশিকে শক্তিশালী করে তুলতে এবং হার্ট অ্যাটাক আটকাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। শুধু তাই নয়, আরও একাধিক রোগের চিকিৎসাতেও পালং শাক উপকারে আসে।

চলুন জেনে জেনে নেওয়া যাক, পালং শাক খাবেন কী কারনে-

১। স্মৃতিশক্তি বাড়ায়ঃ পালং শাকে রয়েছে পটাশিয়াম, ফলেট এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এই শাকটি যদি প্রতিদিন খাওয়া যায় তাহলে মস্তিষ্কের বিশেষ কিছু অংশ এতটাই শক্তিশালী হয়ে ওঠে যে স্মৃতিশক্তি মারাত্মকভাবে বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে পটাশিয়ামের দৌলতে মনোযোগও বৃদ্ধি পায়।

২। রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখেঃ পালং শাকে রয়েছে বিপুল পরিমাণে পটাশিয়াম। আর এই খনিজটি শরীরে প্রবেশ করা মাত্র সোডিয়াম বা লবণের ভারসাম্য ফিরে আসে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাওয়ার আশঙ্কা হ্রাস পায়। এছাড়াও পালং শাকে থাকা ফলেটও ব্লাড প্রেসার স্বাভাবিক রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৩। স্ট্রোকের আশঙ্কা কমায়ঃ লুটেইন নামে একটি বিশেষ উপাদানের সন্ধান পাওয়া যায় পালং শাকে। এই উপাদানটি ব্লাড ভেসেলের ভিতর কোলেস্টেরল জমে থাকার হার কমিয়ে দেয়। ফলে স্বাভাবিকবাবেই স্ট্রোক, অ্যাথেরোস্কেলোসিস এবং হার্ট অ্যাটাক হওয়ার আশঙ্কা কমে।

৪। দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়ঃ পালং শাকে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে বিটা-ক্যারোটিন, লুটেইন এবং জ্যান্থিন, যা রেটিনার ক্ষমতা বাড়ানোর মধ্যে দিয়ে দৃষ্টিশক্তির উন্নতিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। পালং শাক ভিটামিন এ-এর ঘাটতি পূরণ তো করেই, সেই সঙ্গে আই আলসার এবং ড্রাই আইয়ের মতো সমস্যা কমাতেও বিশেষ ভূমিকা নেয়।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 13 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)