তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে টোনার

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 23rd Sep 17 at 12:03am 547
Googleplus Pint
তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে টোনার

সুন্দর, মসৃণ ও দাগহীন ঊজ্জ্বল ত্বক পেতে নিয়মিত ত্বক পরিষ্কারের বিকল্প নেই। এক্ষেত্রে ত্বকের যত্নের মূল পদ্ধতিই হল ক্লিঞ্জিং, এরপর টোনিং এবং ময়েশ্চারাইজিং। অনেকেই আছেন, যারা ক্লিনজিং এবং ময়েশ্চারাইজিং সম্পর্কে জানলেও টোনারের ব্যবহার সম্বন্ধে ওয়াকিবহাল নন। অনেকের ধারণা, ক্লিনজিং মিল্ক বা ক্লিনজিং ক্রিম ব্যবহার করলেই ত্বকের সমস্ত নোংরা বের হয়ে যায়। আদতে তা সত্যি নয়। ক্লিনজিং-এর মাধ্যমে আমাদের ত্বকের সমস্ত ধুলো ময়লা পরিষ্কার হয় না। সেগুলি পরিষ্কার করতে আমাদের অবশ্যই টোনারের সাহায্য নিতে হয়। বিশেষ করে যাদের তৈলাক্ত ত্বক, তাদের জন্য এটি খুবই জরুরি। এটি সাধারণত সাবান বা ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধোয়ার পর এবং মেকআপ বা ময়শ্চারাইজার লাগানোর পূর্বে ব্যবহার করা হয়। টোনার গভীর থেকে ময়লা দূর করে ত্বকের পিএইচ ব্যালেন্স ঠিক রাখে। এটি মুখের লোমকূপ গুলোকে ছোট করে এবং অত্যাধিক তৈলাক্ত উপাদান গুলো বের করে দেয়। নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের উপরিভাগে সুরক্ষা কবচ তৈরি হয়। ফলে ত্বক হয়ে ওঠে আরও মসৃণ ও উজ্জ্বল।

তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে কিছু ঘরোয়া টোনার. . .

আপেল সিডার ভিনিগার
এক কাপ পানির সঙ্গে এক চা চামচ আপেল সিডার ভিনিগার মিশিয়ে নিন। এবার একটি তুলোর টুকরো ওই মিশ্রণে ডুবিয়ে মুখে ভালো করে লাগিয়ে নিন। তৈলাক্ত ত্বকের চিকিৎসায় এই মিশ্রণটি খুবই ভাল কাজ করে।

পুদিনা পাতা
একটি পাত্রে ছয় কাপ পানি ফুটিয়ে নিন। এবার এই পানির মধ্যে বেশ কয়েকটি পুদিনা পাতা ফেলে দিন। কিছু সময় পরে গ্যাসটা বন্ধ করে এই পুদিনা জলটি ঠাণ্ডা করে নিন। তারপর তুলোর বল এই মিশ্রণে ডুবিয়ে ভালো করে মুখ পরিষ্কার করে নিন।

লেবুর রস এবং পুদিনা পাতা
লেবুর রস এবং পুদিনা পাতার টোনারটি তৈরি করতে প্রয়োজন এক চামচ লেবুর রস, একটি পিপারমিন্ট টি ব্যাগ এবং এক কাপ গরম পানির। প্রথমে গরম পানির ভিতরে পিপারমিন্ট টি ব্যাগটি কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। এরপর পিপারমিন্ট মিশ্রিত গরমপানির ভিতর এক চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এটি ঠাণ্ডা হয়ে আসলে ভাল করে সারা মুখে লাগিয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে কার্যকরী ফল পাবেন।

অ্যালোভেরা
একটি অ্যালোভেরার টুকরো নিন। সেই টুকরোটি থেকে এবার একটি চামচের সাহায্যে জেল জাতীয় পদার্থটিকে বার করে এক কাপ পানির সঙ্গে ভাল করে মিশিয়ে নিন। যখন দেখবেন জেলটা ঠিক মতো পানিতে মিশে গেছে, তখন একটি তুলোর টুকরোর মাধ্যমে সারা মুখে ভালো করে সেই মিশ্রণটি লাগিয়ে ফেলুন।

শসা
একটা শসা নিয়ে সেটিকে পাতলা করে কেটে নিন। এবার শশার এই টুকরোগুলোকে অল্প পানিতে ৮ মিনিট মতো ফুটিয়ে নিন। পানি অল্প ফুটতে শুরু করলেই গ্যাসটা বন্ধ করে দিন। এটি ঠাণ্ডা হয়ে গেলে পানি আর শসা একসঙ্গে বেঁটে পানি ছেঁকে নিন। এটিই হল আপনার টোনার। এবার তুলোর সাহায্যে সারা মুখে ভালো করে মেখে নিন। এতেও ভালো ফল পাবেন।

কর্পূর এবং গোলাপ জল
এক চিমটে কর্পূর ও গোলাপ জল একসঙ্গে মেশান। এই মিশ্রণটি প্রতিদিন পানি দিয়ে মুখ ধোয়ার পর ব্যবহার করুন। এটি সবচেয়ে সস্তা এবং উপকারী একটি টোনার।

বরফ জল
অল্প করে তুলো বরফ জলের মধ্যে ডুবিয়ে তা দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। চাইলে একটি বরফের টুকরো নিয়ে সারা মুখে ঘষে নিতে পারেন। এটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুবই ভাল একটি ঘরোয়া টোনার।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 15 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)