ত্বকের নির্জীব কোষগুলোকে সজীব করতে টক দই

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 18th Aug 17 at 2:35pm 367
Googleplus Pint
ত্বকের নির্জীব কোষগুলোকে সজীব করতে টক দই

দই খেতে ভালোবাসেন সকলেই৷ কিন্তু এই দই কিন্তু রূপচর্চার এক অন্যতম উপায়৷ এতে রয়েছে কার্বোহাইড্রেট, ক্যালসিয়াম এবং প্রোটিন৷ মুখে দই মাখলে আপনি খুব সহজেই উজ্জ্বল, মসৃণ ত্বক পেতে পারেন৷ দই মশ্চারাইজারের কাজ করে এবং শুষ্ক ত্বকের জন্য এটি খুবই ভালো৷ এছাড়াও মুখের ব্রণ, রুক্ষতা, অতিরিক্ত তৈলাক্তভাব ইত্যাদি সমস্যা থেকেও রেহাই পেতে পারেন৷ দই ক্লিজারের কাজ করে এবং ত্বকের নির্জীব কোষগুলোকে সজীব করে৷ আর অতি অবশ্যই এতে আপনার রূপচর্চা যেমন হবে তেমন পকেটের টাকাও খুব একটা খরচা হবে না৷ তাই দইয়ের কিছু উপকারিতা রইল আপনাদের জন্য৷

এক কাপ টক দইয়ের সঙ্গে এক টেবিল চামচ পাতিলেবুর রস মিশিয়ে মুখে মাখতে পারেন৷ এটি খুব ভালো ক্লিনজারের কাজ করে৷ এছাড়াও আধ কাপ দইয়ে আধ চা চামচ মধু ভালো করে মিশিয়ে মুখ, কপাল ও গলায় লাগিয়ে নিন৷ ভালো করে ঘষে ২ থেকে ৩ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন৷ দেখবেন আপনার ত্বক অনেক বেশি পরিষ্কার দেখাবে৷

দইয়ে ল্যাকটোবাসিলাস ও স্ট্রেপটোকক্কাস নামক দুটি ব্যাকটেরিয়া থাকে৷ এটি মুখের ট্যান তুলতে খুব উপযোগী৷ দইয়ের সঙ্গে ময়দা মিশিয়ে মুখে মাখলে ট্যানের হাত থেকে রেহাই পেতে পারেন৷ এছাড়াও এটি ত্বকে নরম রাখতে সাহায্য করে৷

দুই ও বেসন মিশিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করে মুখে ফেসপ্যাকের মতো লাগিয়ে নিন৷ এছাড়াও দইয়ের সঙ্গে হলুদগুঁড়ো ও দু ফোঁটা সর্ষের তেল মিশিয়েও মুখে লাগাতে পারেন৷ যারা ব্রণর সমস্যায় ভুগছেন তারা খুব তাড়াতাড়ি উপকার পাবেন৷ আর আপনার ত্বক পরিষ্কার ও উজ্জ্বল দেখাবে৷

মুখে দই ব্যবহার করার পর যদি ত্বকে টান অনুভব করেন তবে তবে ত্বককে হাইড্রেট ও ত্বকের কোষরে রক্ষা করার জন্য একটি মশ্চারাইজার ক্রিম লাগিয়ে নিন৷

তবে যদি আপনার দই বা দুধজাতীয় উপাদান, আলফা ও বিটা হাইড্রক্সাইড অ্যসিড থেকে এ্যালার্জী থাকে তবে দই মুখে না মাখাই ভালো৷ এছাড়াও যদি একবার দই মুখে ব্যবহার করার পর জ্বালা বা ব্যথা অনুভব করেন তবে দ্বিতীয় বার এটি প্রয়োগ করার আগে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন৷

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 15 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)