স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নিয়ে বাপের বাড়ি চলে গেল মহিলা

ভয়ানক অন্যরকম খবর 22nd Jul 17 at 10:02pm 2,288
Googleplus Pint
স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে নিয়ে বাপের বাড়ি চলে গেল মহিলা

অন্য মহিলার সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে স্বামীর। এই ছিল তার অভিযোগ। আর এই নিয়েই হয়েছিল ঝামেলার সূত্রপাত। ভয়ঙ্কর রূপ নিল যার পরিণতি। ঘুমের ঘোরে থাকা স্বামীর পুরুষাঙ্গটিই কেটে নিল ৩০ বছরের মহিলা। শুধু তাই নয়, তা নিজের ব্যাগে পুরে সোজা চলে গেল বাপের বাড়ি। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে তামিলনাড়ুর গুদিয়াতম এলাকায়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মহিলার নাম সরাসু। এক বস্ত্র তৈরির সংস্থায় কাজ করত সে। সেখানেই কিছু বছর আগে আলাপ হয় জগদীসানের সঙ্গে। প্রেম করেই বিয়ে হয়েছিল দু’জনের। তিন মেয়ে ও এক ছেলেও রয়েছে। কিন্তু নিত্যদিনই অশান্তি লেগে থাকত সংসারে।

বছর খানেক আগে আলাদাও থাকতে শুরু করেছিল সরাসু ও জগদীসান। কিন্তু ১৩ বছরের ছেলের অনুরোধে ফের একসঙ্গে থাকতে শুরু করে তামিলনাড়ুর দম্পতি। বৃহস্পতিবার রাতে ফের তুমুল ঝগড়া শুরু হয় দু’জনের মধ্যে। জগদীসান পরকীয়ায় লিপ্ত। অন্য মহিলার সঙ্গে অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে তাঁর, এমনই অভিযোগ করে সরাসু।

রাত দু’টো পর্যন্ত চলে এ নিয়ে ঝগড়া। এরপর জগদীসান ঘুমিয়ে পড়ে। কিন্তু রাত তিনটে নাগাদ আচমকা রান্নাঘর থেকে ছুরি এনে তাঁর পুরুষাঙ্গ কেটে নেয় সরাসু। এখানেই শেষ নয়, কাটা অঙ্গটি নিজের ব্যাগে পুরে সোজা বাপের বাড়ি চলে যায় সে।

প্রতিবেশীরাই জগদীসানকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখান থেকে তাঁকে ভেল্লোর মেডিক্যাল কলেজে স্থানান্তরিত করা হয়। আপাতত জগদীসানের অবস্থা স্থিতিশীল বলে জানা গিয়েছে। তাঁর বয়ানের ভিত্তিতেই সরাসুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। দু’জনের ছেলেমেয়েকে জগদীসানের বাবা-মা’র কাছে রাখা হয়েছে। গোটা ঘটনায় স্থম্ভিত তারা। -সংবাদ প্রতিদিন

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 49 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)