আত্মবিশ্বাসী জীবনযাপনের ৭টি উপায়

লাইফ স্টাইল 15th Jul 17 at 12:05am 680
Googleplus Pint
আত্মবিশ্বাসী জীবনযাপনের ৭টি উপায়

আপনি যখন দেহ, মন এবং আত্মার মধ্যে আত্মবিশ্বাস অনুভব করবেন তা আপনাকে এমন একটি জীবন যাপনে সক্ষম করে তুলবে যা ভেতর থেকেই ভালো অনুভুত হয়।

আপনার মধ্যে আত্মবিশ্বাস থাকলে সেটি আপনাকে আপনি সত্যিকার অর্থেই যা চান তা অর্জনে এবং আপনার স্বপ্নগুলোকে বাস্তবে রুপদানে সহায়তা করবে।

আপনি জীবন সম্পর্কে আরো বেশি আত্মবিশ্বাস অনুভব করতে চান, আপনি যদি আপনার সবচেয়ে বুনো স্বপ্নগুলোর পিছু তাড়া করার সাহস দেখাতে চান তাহলে এই ৭টি বিষয় আপনার সহায়ক হবে. . .

১. নিজের ভেতরের স্বরটিকে বিশ্বাস করতে শিখুন
নানা ধরনের চিন্তার ভিড়ে আপনার মনের ভেতর যে স্বরটি সাতার কাটে সেটাই আপনার ভেতরগত প্রজ্ঞা বা অন্তরাত্মা। এটাই আপনার সহজাত প্রবৃত্তি এবং স্বজ্ঞা। যা আপনাকে সর্বদা দিক-নির্দেশনা দেয়।

সুতরাং আপনার মনের বিক্ষিপ্ত চিন্তাগুলোকে চুপ করিয়ে দিয়ে আপনার ভেতরগত এই স্বরটি কী বলতে চাইছে তা আপনাকে শুনতে হবে। এই স্বরটি সবসময়ই ইতিবাচক এবং আপনাকে নিজেকে আরো শক্তিশালি অনুভব করতে সহায়তা করে। কারণ এটি আপনার সত্যিকার সম্ভাবানাটুকু কী এবং আপনি সত্যিই কী করতে সক্ষম তা জানে। অন্যদিকে, আপনার মনটি আপনাকে ভয় ও সন্দেহে পূর্ণ করে দিতে পারে। সুতরাং সিদ্ধান্ত গ্রহনের সময় নিজের ভেতরকার এই স্বরটি কী বলতে চায় তা শুনুন।

২. নতুন কিছু চেষ্টা করুন
একটি দক্ষতা বা প্রতিভায় আত্মবিশ্বাস অর্জনে বেশ সময় লাগে। আপনি যখন যা জানেন তাতে লেগে থাকেন তখন আপনি প্রথমে আত্মবিশ্বাস অনুভব করতে পারেন। কিন্তু এটি আপনাকে সীমাবদ্ধতার অনুভুতিও দিতে পারে।

সুতরাং সত্যিকার অর্থেই আত্মবিশ্বাসী হওয়ার জন্য আপনার নিজেকে বারবার নতুন জিনিস এবং নতুন কিছু শেখার চ্যালেঞ্জে জানাতে হবে। কোনো কিছুতে নিখুত হয়ে ওঠা থেকে আত্মবিশ্বাস আসে না বরং চেষ্টা এবং তার ফলাফল যাই হোক না কেন তা মেনে নেওয়ার মানসিকতা থেকেই আসে।

৩. ব্যর্থতায় ভয় পাবেন না
ব্যর্থতা খারাপ নয়। ব্যর্থতা হলো এমন একটি বার্তা যে আপনাকে আবারও চেষ্টা করতে হবে; তবে একটু ভিন্ন উপায়ে। ব্যর্থতা জীবন প্রক্রিয়ারই একটি অংশ। সুতরাং ব্যর্থতাগুলোকে নতুন কিছু শেখার সুযোগ সৃষ্টিকারী উপলক্ষ হিসেবে গ্রহন করতে শিখুন। আর এটাও মনে রাখবেন সাফল্যের যাত্রাপথের কোনো বিন্দুতে ব্যর্থতা আসাটা অনিবার্যই বটে।

৪. দেহভঙ্গিতে আত্মবিশ্বাস প্রকাশের চর্চা করুন
আপনার দেহভঙ্গিও আপনার আত্মবিশ্বাসের মাত্রা সম্পর্কে অনেক কিছু বলে দেয়। এমনকি এটি আপনার নিজের সম্পর্কে নিজের অনুভুতিকেও প্রভাবিত করতে পারে। লম্বা হয়ে বুক উঁচু করে এবং পশ্চাদ্দেশের ওপর দুহাত রেখে দাঁড়ালে প্রাকৃতিকভাবেই আত্মবিশ্বাস এবং আশাবাদ চাঙ্গা হয়। প্রতিদিন কয়েক মিনিটের জন্য এই পাওয়ার পোজের চর্চা করলে দেখবেন আপনার আত্মবিশ্বাসের মাত্রা তরতর করে বাড়ছে।

৫. নিজের অর্জনগুলো উদযাপন করুন
আত্মবিশ্বাসী লোকেরা নিজেদের ছোটখাটো অর্জনগুলো নিয়েও গর্ববোধ করেন। সুতরাং যখনই কোনো লক্ষ অর্জনে সফল হবেন তা উদযাপন করুন। এভাবে যতই আপনি নিজেই নিজেকে সমর্থন করবেন এবং নিজেই নিজেই সবচেয়ে বড় বাহবা দানকারী হবেন ততই আপনি জীবন প্রক্রিয়ায় আরো আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবেন। এবং নিজের স্বপ্নগুলোর পিছু তাড়া করারও সাহস পাবেন।

৬. নিজের ওপর বিশ্বাস স্থাপন করুন
আপনার মনটি অনেক শক্তিশালি একটি হাতিয়ার। জীবনে আরো বেশি আত্মবিশ্বাস অনুভবের ক্ষেত্রে আপনার মনের ভুমিকাই সবচেয়ে বেশি। আপনি যখন নিজের সক্ষমতার ওপর বিশ্বাস স্থাপন করতে পারবেন তখনই আপনার জন্য আপনার স্বপ্নের পিছু তাড়া করা সহজ হবে। এই বিশ্বাস আপনাকে যে কোনো লক্ষ্যে সাফল্য অর্জনেও সহায়তা করবে।

৭. অন্যদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় মেতে উঠবেন না
আত্মবিশ্বাসী লোকেরা জানেন দুনিয়াতে অন্যের সঙ্গে প্রতিযোগিতা বলে কিছুই নেই। প্রতিযোগিতার চেয়েও অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো লক্ষ্য অর্জনে চেষ্টা করে যাওয়া। এবং নিজেকে অন্যের চেয়ে উত্তম প্রমাণের জন্য নয় বরং নিজের ব্যাক্তিগত উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাওয়া। আপনি যা কিছুর যোগ্য তা আপনি এক সময় অর্জন করতে পারবেন। সুতরাং অন্যের সঙ্গে প্রতিযোগিতা একটা বিভ্রম মাত্র। জীবনে যা কিছু তার সবই আমাদের আছে। আর সীমাবদ্ধতাগুলো আমরা নিজেরাই নিজেদের ওপর আরো করি।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 16 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)