খুশকি হবে দূর

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 12th Jul 17 at 10:35pm 274
Googleplus Pint
খুশকি হবে দূর

খুশকি যেমন বিরক্তিকর তেমনি অস্বস্তিদায়কও বটে! এটি আমাদের সৌন্দর্য নষ্ট করার জন্য যথেষ্ট। সুন্দর ও ঝরঝরে চুলের শত্রু এই খুশকি। মাথার চামড়া শুকিয়ে যখন বেশি চুলকায় তখনই খুসকি হয়ে তা ঝরে পড়ে। অপরিচ্ছন্নতা, ঠান্ডা, বাতাস বা হিটারের গরম তাপ থেকে মাথার চামড়া খানিকটা শুকিয়ে যেতে পারে। ফলে তা লাল হয় এবং চুলকায়, যাতে খুশকি আরো বেড়ে যায়।

‘অ্যান্টি ড্যানড্রফ’ লেখা অনেক শ্যাম্পু বাজারে পাওয়া যায়, যেগুলি ব্যবহার করা কোনোভাবেই উচিত নয়। কারণ চর্ম বিশেষজ্ঞদের মতে, এ ধরণের শ্যাম্পু ব্যবহারে মাথার চামড়া আরো শুকিয়ে হয়ে যায় আর ফল হয় উল্টো।

যদি কেউ মনে করেন যে বেশি করে চুল ধুলেই খুসকি কমে যাবে, তাহলে সেই ধারণা কিন্তু পুরোপুরি ভুল। খুব হালকা শ্যাম্পু দিয়ে সপ্তাহে দু’দিন চুল ধুলেই যথেষ্ট।

লক্ষ রাখতে হবে শ্যাম্পুতে যেন কোনো রকমের কৃত্রিম রং বা গন্ধ না থাকে। এছাড়া ভেজা চুল জোরে জোরে না ঘসে খুব নরম তোয়ালে ব্যবহার করে আস্তে মুছে ফেলতে হবে। অনেক সময় অবশ্য দেখা যায় যে, শুধু শ্যাম্পু পরিবর্তন করলেই খুসকি কমে যায়

শ্যাম্পুতে যেন হাইড্রোজেনের (পিএইচ) পরিমাণ ৫.৫-এর মতো হয়। তাছাড়া জলপাইয়ের নির্যাসে তৈরি শ্যাম্পু ও তেল খুসকি দূর করার জন্য খুবই ভালো। তবে রাতে শোওয়ার আগে কয়েক ফোটা অলিভ অয়েল মাথায় দিয়ে ভালো করে ধীরে ধীরে ম্যাসেজ করে পরের দিন শ্যাম্পু করলেও ভালো ফল পাওয়া যায়।

চুলে শক্ত ব্রাশ ব্যবহার না করে চিরুনি দিয়ে আস্তে, খুব যত্নের সাথে চুল আঁচড়াতে হবে। চার থেকে পাঁচ সপ্তাহ এই নিয়মগুলো মেনে চললে খুশকি কমে যাওয়ার কথা। আর তাতেও যদি না কমে, তাহলে অবশ্যই চর্ম বিশেষজ্ঞকে দেখানো উচিত, এমনই পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 14 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)