ত্বক ও চুলের পুষ্টিতে মৌসুমি ফল

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 27th Jun 17 at 2:07pm 329
Googleplus Pint
ত্বক ও চুলের পুষ্টিতে মৌসুমি ফল

আনারস, তরমুজ বা পেঁপের শরবত যেমন তৃষ্ণা মেটায় তেমনি এই সময়ের অনেক ফল ত্বক ও চুলের স্বাস্থ্যও ভালো করে।

ভারতের 'হেইঞ্জ নিউট্রিশন ফাউন্ডেশন'য়ের পুষ্টি বিশেষজ্ঞ নীলাঞ্জনা সিং জানান, অন্যান্য গুণাগুণের পাশাপাশি এসব ফল ত্বক ও চুলের যত্নে বিশেষ উপকারী। আর ক্যালরিও কম।

আনারস: আঁশবহুল ও কম ক্যালরি যুক্ত ফল। এটা কোলাজেন বৃদ্ধি করে এবং ত্বকের ক্ষয় পূরণ করে পরিষ্কার ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বক পেতে সাহায্য করে। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বকের ক্ষয় রোধ করে। তাছাড়া প্রতিদিন এই ফল খেলে বয়সের ছাপ ও ত্বকের বলিরেখা দূর করতে সাহায্য করে।

পেঁপে: ত্বকের যত্নে পেঁপে বেশ সুপরিচিত। ভিটামিন সি’র ভালো উৎস হওয়ায় রূপচর্চার প্রায় প্রতিটি প্রসাধনীতেই এটা ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও এর বিটা ক্যারোটিন এবং লাইপোসিন একসঙ্গে ত্বকের জন্য জাদুকরী কাজ করে। এরা ত্বকের ক্ষয় রোধ করে বলিরেখা ও বয়সের অন্যান্য ছাপ দূর করতে সাহায্য করে। পেঁপে ত্বকে সরাসরি ব্যবহার করলে ত্বকের গঠন ও কাঠামো সুন্দর হয়।

সুন্দর ও উজ্জ্বল ত্বকের জন্য ফল ব্যবহারের পাশাপাশি অন্যান্য আরও কিছু করণীয় আছে বলে জানান, অর্গানিক হারভেস্ট এর রূপবিশেষজ্ঞ ও প্রধান প্রশিক্ষক সোনিয়া মাথুর।

পানি: একবারে বেশি নয়, ধীরে ধীরে বাড়িয়ে পানি পান করা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। এটা শরীরকে ভেতর থেকে আর্দ্র রাখে এবং ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখে। পানি দীর্ঘমেয়াদে বলিরেখা দূর করতে পারে। ত্বক সুন্দর রাখতে দৈনিক আট থেকে নয় গ্লাস পানি পান করুন।

জৈব উপাদান: বিট, তেঁতুল, সামুদ্রিক মাছের তেল ইত্যাদি শুষ্ক ত্বকের জন্য ভালো। এগুলো ত্বক নরম ও কোমল রাখতে সাহায্য করে। সামদ্রিক মাছের তেল ভিটামিন ই সমৃদ্ধ। এটা ত্বকের গভীরের আর্দ্রতা রক্ষা করে। ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখে এবং কোষের নমনীয়তা বজায় রাখে।

নাইট ক্রিম: ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষার জন্য রাত সবচেয়ে ভালো সময়। নাইট ক্রিমগুলোতে সানব্লক যুক্ত না থাকায় তা হালকা হয় এবং ত্বকের আর্দ্রতা রক্ষা করায় সাহায্য করে। নাইটক্রিমগুলো এমনভাবে তৈরি করা হয় যা ত্বকের বলিরেখা, বয়সের ছাপ এবং ত্বকের অন্যান্য অসঙ্গতি নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। তাই ত্বকের ধরন অনুযায়ী নাইটক্রিম নির্বাচন করা ও তা নিয়মিত ব্যবহার করা উচিত।

ফল ও সালাদ: খাবার গ্রহণের উপর শরীরের আর্দ্রতার এবং সুস্থতায় প্রভাব ফেলে। বেশিরভাগ ফল ও সবজি উচ্চ পানি, অত্যাবশ্যকীয় ভিটামিন এবং খনিজে ভরপুর। যা মানব দেহের সার্বিক সুস্থতার জন্য প্রয়োজন। ত্বক ভালো রাখতে প্রতিদিনের খাবার তালিকায় থাকা যে কোনো ভাজাপোড়া খাবারের পরিবর্তে একটি তাজা ফল খান।

ময়েশ্চারাইজার: গরমে সুন্দর ও আরামদায়ক ত্বকের জন্য সঠিক ময়েশ্চারাইজার ক্রিম বেছে নেওয়াটা বেশ কঠিন কাজ। শীতকালের ময়েশ্চারাইজার বাদ দিয়ে হালকা ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এটা ত্বক সুন্দর রাখতে ও পুনর্গঠন করতে সাহায্য করে। উজ্জ্বল ময়েশ্চারাইজারের সঙ্গে সানব্লক মিশিয়ে ব্যবহার করলে তা ত্বককে সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনী রশ্মি থেকে রক্ষা করে।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 26 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)