দাগহীন ত্বক পাবেন যেভাবে

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 11th Jun 17 at 10:42pm 272
Googleplus Pint
দাগহীন ত্বক পাবেন যেভাবে

দাগহীন ত্বক পেতে আমাদের প্রচেষ্টার কমতি থাকে না। রূপচর্চার প্রয়োজনে এটা সেটা কত কী ব্যবহার করি। তবু যেন ব্রণ, মেছতার দাগ থেকে যায়। চোখে কালি, ব্রণ বা মেস্তার দাগ, ব্ল্যাকহেডস জমে যাওয়াসহ নানা কারণে মুখের কোনো কোনো অংশের রং পরিবর্তিত হতে দেখা যায়। কীভাবে পাবেন দাগহীন ত্বক, চলুন জেনে নেই-

ব্রণের দাগ দূর করতে কাঁচা ব্রণে সমপরিমাণ লবঙ্গ, তুলসীপাতা, নিমপাতা, পুদিনাপাতা একসঙ্গে পেস্ট করে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রাখলে সেখানে দাগ হবে না। শুষ্ক ত্বকের ব্রণের দাগ দূর করতে লবঙ্গ তেল খুব উপকারী। ব্রণ শুকিয়ে যাওয়ার পর মুখে চিনি আর দারুচিনি বাটা একসঙ্গে পেস্ট করে লাগাতে পারেন। লবঙ্গ বা দারুচিনি ত্বকে লাগানোর পর একটু জ্বালা করবে, এতে কোনো ক্ষতি নেই।

চোখের কালি দূর করতে শসা বা আলু ছেঁচে চোখের ওপর ২০ মিনিট রেখে দিন। ব্যবহৃত টি ব্যাগ কিছুক্ষণ চোখের ওপর রেখে দিলেও কাজে দেবে।

বাঁধাকপি সেদ্ধ করে তার পেস্টও চোখে লাগিয়ে রাখতে পারেন। পেস্তাবাদাম বাটার সঙ্গে অল্প মধু লাগিয়ে ব্যবহার করলেও চোখের কালি দূর হয়। করলা হালকা ছেঁচে চোখের ওপর দিয়ে রাখতে পারেন।

মেস্তার দাগ দূর করতে অ্যালোভেরা জেল বের করে ১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখতে পারেন। তালমাখনা অথবা ইসবগুলের ভুষি কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। থকথকে হয়ে যাওয়ার পর মুখে ১৫-২০ মিনিট লাগিয়ে রাখতে পারেন।

ব্ল্যাক হেডস দূর করতে পোলাওয়ের চাল ও মুগ ডাল আধা ভাঙা করে তার সঙ্গে মধু মিশিয়ে প্যাক তৈরি করুন। এটি ১০-১৫ মিনিট মুখে লাগিয়ে রাখার পর যেসব জায়গায় ব্ল্যাক হেডস বেশি, সেখানে হালকা ঘষে ঘষে তুলে ফেলুন। সুজি হালকা ভেজে নিয়ে তার সঙ্গে টকদই ও মধু মিশিয়েও ব্যবহার করা যেতে পারে।

টমেটোর রস এবং মধু রোদে পোড়া ভাব দূর করে। গাজর, মধু এবং বেকিং পাউডারের মিশ্রণও কার্যকরী। শুষ্ক ত্বকে তিলের তেল ভালোভাবে কিছুক্ষণ মালিশ করে ফেসওয়াশ দিয়ে ধুয়ে ফেলুন, হারিয়ে যাওয়া উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 23 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)