ওয়ালটনের সপ্তম প্রজন্মের ল্যাপটপ বাজারে

কম্পিউটার রিভিউ 1st Jun 17 at 4:56pm 512
Googleplus Pint
ওয়ালটনের সপ্তম প্রজন্মের ল্যাপটপ বাজারে

সপ্তম প্রজন্মের ল্যাপটপ বাজারে আনলো দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন। মাল্টিটাক্সিং সুবিধা ও উন্নত ফিচারসমৃদ্ধ এই ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক শীর্ষ আইসিটি ব্র্যান্ড ইন্টেলের শক্তিশালী কোর আই থ্রি প্রসেসর। দামেও বাজারে প্রচলিত অন্যান্য ব্র্যান্ডের চেয়ে প্রায় ২০ শতাংশ সাশ্রয়ী। প্যাশন সিরিজের এই ল্যাপটপটি ১৫.৬ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে। ল্যাপটপটির মূল্য ৩৫ হাজার ৯৯০ টাকা।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর মতিঝিলে ওয়ালটন মিডিয়া অফিসের কনফারেন্স হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বাজারে ছাড়া হয় আরো তিন মডেলের কোয়াডকোর প্রসেসর সমৃদ্ধ ল্যাপটপ। এগুলো হচ্ছে প্যাশন সিরিজের মডেল ডব্লিউপি১৫৭১জি, ডব্লিউপি১৪বি৭১বি এবং টেমারিন্ড সিরিজের ডব্লিউটি১৫বি৭১জি মডেল।

শিক্ষার্থীদের উপযোগী এই মডেলগুলোর মূল্য যথাক্রমে ২৪,৯৯০, ২৪,৫৫০ এবং ২৩,৯৯০ টাকা।

বৃহস্পতিবার থেকেই দেশের সকল ওয়ালটন প্লাজা ও সেলস পয়েন্টে পাওয়া যাচ্ছে এই নতুন চার মডেলের ল্যাপটপ। এ নিয়ে ওয়ালটনের ল্যাপটপ প্রোডাক্ট লাইনে যুক্ত হলো ২৬টি ভিন্ন ভিন্ন মডেল। সব মডেলের ব্যাটারিতে ৬ মাসের এবং ল্যাপটপে থাকছে ২ বছরের ফ্রি বিক্রয়োত্তর সেবা।

ওয়ালটন ল্যাপটপ বিভাগের প্রোডাক্ট ম্যানেজার আবুল হাসনাত জানান, সপ্তম প্রজন্মের প্রসেসরযুক্ত ওয়ালটনের নতুন ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে ১৫.৬ ইঞ্চির এইচডি এলসিডি ডিসপ্লে। এতে আছে ২.৪ গিগাহার্টস গতির কোর আই থ্রি ৭১০০ইউ প্রসেসর। বিল্টইন ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৬২০। ফলে গেম খেলার সময় উচ্চ গ্র্যাফিক্যাল ইন্টারফেস পাওয়া যাবে। ভিডিও এডিটিং কাজে গ্রাফিক্যাল কালার ও মানও হবে অনেকটাই উন্নত। এর সঙ্গে রয়েছে ৪ গিগাবাইট ডিডিআর৪ র‌্যাম। ফলে এই ল্যাপটপে পাওয়া যাবে দারুণ গতি। প্রয়োজনীয় গেম, সফটওয়ার, ডকুমেন্ট, মুভি ইত্যাদি সংরক্ষণের জন্য এক টেরাবাইট হার্ডডিক্স ড্রাইভের সঙ্গে রয়েছে ৯.৫ মিমি সাটা ইন্টারফেস। সুযোগ থাকছে আরো বেশি জায়গাযুক্ত হার্ডডিক্স ড্রাইভ ব্যবহারের। দীর্ঘক্ষণ পাওয়ার ব্যাকআপের নিশ্চয়তায় নতুন এই ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে শক্তিশালী ৪ সেলের স্মার্ট লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি। যা পাঁচ ঘন্টা পর্যন্ত পাওয়ার ব্যাকআপ দিতে সক্ষম।

শিক্ষার্থীদের জন্য সাশ্রয়ী মূলের অপর তিন মডেলের ল্যাপটপে ব্যবহৃত হয়েছে ১.৬ গিগাহার্টস গতির ষষ্ঠ প্রজন্মের কোয়াডকোর প্রসেসর। ৪ গিগাবাইট ডুয়াল চ্যানেল ডিডিআরথ্রিএল র‌্যাম, যা ৮জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। বিল্টইন ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৪০৫ থাকায় কাজে আসবে গতি। বিনোদন হবে আরো উপভোগ্য। ৫০০ গিগাবাইট স্টোরেজে অনায়াসেই সংরক্ষণ করা যাবে প্রয়োজনীয় ফাইল বা মুভি। ১৫.১ ও ১৪.১ ইঞ্চি পর্দার এসব লাপটপের এইচডি মানের এলসিডি ডিসপ্লে দেবে নিখুঁত ও জীবন্ত ছবি। বিভিন্ন কোণ থেকে ডিসপ্লে দেখা যাবে স্পষ্টভাবে। সব ল্যাপটপেরই ১ মেগা পিক্সেলের এইচডি ক্যামেরা থাকায় ভিডিও কল করা যাবে। ধারণ করা যাবে এইচডি মানের ভিডিও। চার সেলের লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি দেবে পাঁচ ঘন্টা পর্যন্ত পাওয়ার ব্যাকআপ।

উল্লেখ্য, মাত্র ২০ শতাংশ ডাউন পেমেন্ট দিয়ে ক্রেতারা ১২ মাসের কিস্তিতে কিনতে পারছেন টেমারিন্ড, প্যাশন, কেরোন্ডা ও ওয়াক্সজ্যাম্বু সিরিজের সব মডেলের ল্যাপটপ। এছাড়াও, উচ্চগতির ওয়াক্সজ্যাম্বু ও কেরোন্ডা সিরিজের দুই মডেলের গেমিং ল্যাপটপ ৩ মাসের কিস্তিতে নগদ মূল্যে কেনার সুযোগ থাকছে।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 33 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)