ভুলেও আর গরম পানিতে গোসল করবেন না! না হলে কিন্তু বিপদ!

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 29th May 17 at 4:49pm 209
Googleplus Pint
ভুলেও আর গরম পানিতে গোসল করবেন না! না হলে কিন্তু বিপদ!

একথা মানেন তো সারা দিনে আমরা যা যা করি, তার সব কিছুর সঙ্গে শরীরের ভাল-মন্দের সরাসরি যোগ থাকে। সেই কারণেই তো সুস্থ থাকতে ছোট থেকে ছোট বিষয়ের উপর নজর রাখাটা একান্ত প্রয়োজন, না হলেই কিন্তু বিপদ! আপনারা অনেকেই তো ঠান্ডার সময় ছাড়াও গরম জলে স্নান করেন।

কিন্তু এমন অভ্যাস শরীরের জন্য ভাল কিনা সে সম্পর্কে খোঁজ রাখেন? পরিসংখ্যান বলছে প্রায় ৮০ শতাংশই গরম জল বা ঠান্ডা জলের স্নান করার উপকারিতা বা আপকারিতার কথা না জেনে কেবল অন্ধের মতো কাজটি করে থাকেন। তাই তো বলি অনেক হয়েছে, আর নয়। এবার থেকে গরম জলে স্নান করা একেবারে বন্ধ করে দিন। না হলে কিন্তু...

বাস্তব ১:

ছেলেরা দীর্ঘ সময় গরম জলে স্নান করলে বাচ্চা হওয়ার ক্ষেত্রে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। কারণ এমন অভ্যাসের কারণে ফার্টিলিটি কমে যায়। তাই তো ছেলেদের সব সময় ঠান্ডা জলে স্নান করা উচিত। এমনটা করলে স্পার্ম কাউন্ট বৃদ্ধি পায়। ফলে সন্তান নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনও অসুবিধাই হয় না।

বাস্তব ২:

একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে প্রচন্ড ঠান্ডায় গরম জলে স্নান করলে হঠাৎ করে হার্টের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। শুধু তাই নয়, এমনটা করলে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভবনাও বাড়ে। তাই যাদের হার্টের সমস্যা রয়েছে তারা ভুলেও গরম জলে স্নান করার কথা ভাববেন না।

বাস্তব ৩:

গরম জলে স্নান করলে ত্বকের আদ্রতা হারিয়ে যায়। ফলে স্কিন রুক্ষ হতে শুরু করে। ফলে ধীরে ধীরে ত্বকের সুন্দর্য় হ্রাস পেতে থাকে। আপনি কি চান এমনটা অপনার ত্বকের সঙ্গেও হোক? চান না তো! তাহলে আজ থেকেই গরম জলে স্নান করে একেবারে বন্ধ করে দিন।

বাস্তব ৪:

সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণা পত্র অনুসারে ঠান্ডা জলে স্নান করলে আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটে। ফলে নানাবিধ সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা একেবারে হ্রাস পায়। প্রসঙ্গত, মদ্যপান করার পরে ভুলেও গরম জলে স্নান করবেন না। এমনটা করলে হার্টের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

বাস্তব ৫:

গরম জলে স্নান করার সময় রক্ত চাপে পরিবর্তন হতে শুরু করে। ফলে এই সময় সারা শরীরে রক্তের সরবরাহ ঠিক রাখার পাশাপাশি ব্লাড প্রেসার স্বাভাবিক রাখতে হার্টকে বেশি বেশি করে কাজ করতে হয়। ফলে যাদের হার্টের রোগ রয়েছে তাদের মারাত্মক কোনও ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

বাস্তব ৬:

অনেকেরই গরম জলে স্নান করার পর মাথা ঘোরা এবং গা গোলানোর মতো অসুবিধাগুলি হয়ে থাকে। কখনও ভেবে দেখেছেন কেন এমনটা হয়? গবেষণা বলছে গরম জল শরীরে পরা মাত্র রক্তচাপে হেরফের হতে শুরু করে। ফলে শরীরের কর্মক্ষমতা কমে গিয়ে এই সব লক্ষণগুলি দেখা দিতে থাকে।

বাস্তব ৭:

গরম জলে স্নান করার কারণে অনেকেরই হঠাৎ করে বমি হওয়া এবং মাথা ঘুরে যাওয়ার মতো সমস্যা দেখা দেয়। এমনটা হওয়ার পেছনে কারণটা সেই এক। রক্ত চাপের হেরফের। তাই তো সুস্থ শরীরকে যদি ব্যস্ত করতে না চান তাহলে গরম জলে স্নান করার অভ্যাস ছেড়ে দিন। প্রসঙ্গত, খাবার পর ভুলেও গরম জলে স্নান করবেন না। এমনটা করলে শরীরের ক্ষয় হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিতে পারে।

সূত্রঃ বোল্ডস্কাই

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 21 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)