যেভাবে আলাদা করবেন ভালোবাসা আর আবেগ

লাইফ স্টাইল 28th May 17 at 12:05pm 266
Googleplus Pint
যেভাবে আলাদা করবেন ভালোবাসা আর আবেগ

ভালোলাগা থেকেই ভালোবাসার সৃষ্টি। মানুষের মাঝে তৈরি হওয়া বন্ধুত্ব ধীরে ধীরে রূপ নেয় ভালোবাসায়। তবে ভালোবাসার সংজ্ঞা অনেকের কাছে অনেক রকম। কেউ ভালোবাসা বোঝাতে কেবল পরিবারের প্রতি ভালোবাসাই বোঝায়। ভালোবাসার কোনো সীমানা নেই। তবে আমাদের মাঝে মাঝে বুঝতে ভুল হয় যে কোনটি ভালোলাগা আর কোনটি ভালোবাসা। একটু লক্ষ্য নিয়ে পছন্দের মানুষটিকে পর্যবেক্ষণ করুন। দেখবেন এর জবাব খুব সহজেই পেয়ে গিয়েছেন।

ভালোবাসা নিঃস্বার্থ আর আবেগ স্বার্থপর :
আপনি যখন কাউকে ভালবাসবেন তখন সেই কেবল হবে আপনার চিন্তাশক্তির মালিক। তার ভালোলাগা মন্দ লাগা আপনার কাছে বিশাল ব্যাপার হবে। ছোট ছোট ব্যপার নিয়ে আপনি তার সাথে ঝগড়া করবেন। তার করা কাজগুলোতে আপনি আপনার নিজেকে খুঁজবেন, তাকে কীভাবে সুখে রাখা যায় তা খুঁজে বের করবেন। আবেগের ক্ষেত্রে আপনি অনেক কিছুই বলতে পারবেন কিন্তু শেষ মুহুর্তে এসে আর করতে পারবেন না। তার চিন্তাশক্তিতে আপনি নিজেকে না আপনার চিন্তাশক্তিতে তাকে রাখতে চাইবেন।

ভালোবাসা মানে মুক্তি আর আবেগ মানে বন্দি :
ভালোবাসায় মানুষ একে অন্যকে অনেক বিশ্বাস করে। একে অন্যকে প্রচুর সময় দেয়। পছন্দের মানুষের করা কাজকে নিজের মনে করে। তাকে কারো সাথে মিশতে বাঁধা দেয় না। ভালোবাসায় হারানোর ভয় থাকলেও তার উপর বিশ্বাসের জন্য তার প্রভাব পরে না। অন্যদিকে আবেগ আর ভালোলাগায় থাকে কেবলই হারানোর ভয়। তাই তাকে যেকোনো কাজেই দেয়া হয় বাঁধা। তাকে নিজের কাছে আটকে রাখার চেষ্টা চালানো হয়।

ভালোবাসা মানে পরস্পরকে বোঝা আর ভালোলাগা মানে চাপিয়ে দেওয়া :
ভালোবাসায় যেকোনো সমস্যাকে খুব যত্ন করে সমাধানে আনা হয়। নিজেদের মাঝে খুব ধীরে ধীরে পরস্পরকে বুঝতে পারার সম্পর্ক তৈরি হয়। আর ভালোলাগা বা আবেগের ক্ষেত্রে পরস্পরকে বুঝতে পারাটা চাপিয়ে দেওয়া হয়। জোর করে একে অন্যকে বুঝতে চেষ্টা করা হয়। যা ভালোবাসায় আপনাআপনি সৃষ্টি হয়।

ভালোবাসা অনন্ত আর আবেগ অস্থায়ী :
ভালোবাসা কখনো শেষ হয়না এটি মানুষের মাঝে ধীরে ধীরে কেবল বৃদ্ধিই পায়। কিন্তু আবেগ বা ভালোলাগা ধীরে ধীরে কমতে থাকে এবং একটা সময় তা শেষ হয়ে যায়।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 21 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)