চুলের যত্নে হেয়ার স্পা

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 21st May 17 at 11:19pm 232
Googleplus Pint
চুলের যত্নে হেয়ার স্পা

হেয়ার মাস্ক বাড়িতেও তৈরি করে নিতে পারেন। একটি ডিম, এক টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল, একটি লেবুর রস, এক চা চামচ গ্লিসারিন বা মধু ভালো করে মিশিয়ে নিন। স্কাপে ও চুলে এই মিশ্রণ ভালোভাবে লাগান।

হেয়ার স্পা চুল সুস্থ ও সুন্দর করে তোলার এক বিশেষ পদ্ধতি। এই পদ্ধতিতে প্রথমে চুল কী ধরনের এগুলো টেস্ট করা হয়। তারপর অয়েল ম্যাসাজ, শ্যাম্পু, হেয়ার মাস্ক, কন্ডিশনার ব্যবহার করে স্কাল্প ও চুল নরম ও মসৃণ করে তোলা হয়। শ্যাম্পু করার সময় অন্তত ১০ মিনিট ধরে ম্যাসাজ করা হয়। শ্যাম্পু করার পর ডিপ কন্ডিশনিং মাস্ক লাগিয়ে আরো ২০-২৫ মিনিট ম্যাসাজ করা হয়। হেয়ার স্পা করার সময় চুলের প্রকৃতি অনুযায়ী ক্রিম ব্যবহার করা হয়। সাধারণত বিউটি স্যালনে অভিজ্ঞ বিউটি শিয়ানরা হেয়ার স্পা করে থাকেন। তবে বাড়িতেও হেয়ার স্পা করতে পারেন। বাড়িতে কিভাবে হেয়ার স্পা করাবেন সে বিষয়ে জানাচ্ছে নভীনসের রূপবিশেষজ্ঞ আমিনা হক।

বাড়িতে হেয়ার স্পা করানোর জন্য প্রথমেই বেছে নিন মাইল্ড হার্বাল শ্যাম্প, প্লাস্টিক পাওয়ার কাপ, তোয়ালে, বড় দাঁড়ার চিরুনি, হেয়ার কন্ডিশনিংয়ের উপকরণ।ষ চুল প্রথমেই শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলুন। চুল পরিষ্কার থাকলে হেয়ার কন্ডিশনিংয়ের উপকরণগুলো সহজে চুলের গোড়ায় প্রবেশ করে।

অল্প পরিমাণে শ্যাম্পু নিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন ভালোভাবে। তারপর মাথায় তোয়ালে জড়িয়ে রাখুন। চুলের ভেজা ভাব কমে এলে চুল আঁচড়ান।

চুলের ডগা থেকে চুল আঁচড়ানো শুরু করুন। আস্তে আস্তে উপরের অংশে আসুন। এতে চুলে জটা লাগবে না।ষ হেয়ার মাস্ক বাড়িতেও তৈরি করে নিতে পারেন। একটি ডিম, এক টেবিল চামচ ক্যাস্টর অয়েল, একটি লেবুর রস, এক চা চামচ গ্লিসারিন বা মধু ভালো করে মিশিয়ে নিন। স্কাপে ও চুলে এই মিশ্রণ ভালোভাবে লাগান। তারপর প্লাস্টিকের ক্যাপ পরে নিন। এক ঘণ্টা রাখুন। এক ঘণ্টা পর শ্যাম্প দিয়ে চুল ভালো করে ধুয়ে ফেলুন।

চার কাপ পানিতে চা পাতা নিয়ে ভালো করে ফোটান। এই মিশ্রণের সাথে লেবর রস মেশান। মিশ্রণটি ঠাণ্ডা করুন। শ্যাম্পু করার পর মিশ্রণটি দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। চুল চকচকে ও পরিষ্কার হবে।

কিভাবে চুলের পরিচর্যা করবেন

শুষ্ক চুলে সপ্তাহে অন্তত দু’দিন অয়েল ম্যাসাজ করুন।তারপর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। বেশি ক্যামিকেলযুক্ত অয়েল ব্যবহার করবেন না। এতে চুলের ন্যাচারাল অয়েল ব্যালান্স নষ্ট হয়ে যেতে পারে।শ্যাম্পু করার পর নারিশিং ময়েশ্চারাইজিং কন্ডিশনার ব্যবহার করুন। মাসে একবার ডিপ কনিশনিং মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 22 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)