এই গ্রামের সকলেই জন্মেছেন ১ জানুয়ারি!

সাধারন অন্যরকম খবর 20th May 17 at 7:29pm 561
Googleplus Pint
এই গ্রামের সকলেই জন্মেছেন ১ জানুয়ারি!

নাম, ঠিকানার মতোই জন্ম তারিখও যেকোনও মানুষের একটি বড় পরিচয়৷ স্কুলে ভর্তি করা হোক কিংবা চাকরিতে যোগ দেওয়া, সঠিক জন্ম তারিখের প্রয়োজন হয় সর্বত্র৷ আবার জন্ম তারিখ জানলেই শুধু হবে না, দিতে হয় তার শংসাপত্রও৷

কিন্তু অনেক সময়েই সরকারি নথিতেই জন্ম তারিখ ঘিরে তৈরি হয় বিভ্রান্তি৷ ঠিক যেমনটা হয়েছে উত্তরপ্রদেশের এলাহাবাদের খানজাসা গ্রামে৷ এই গ্রামের প্রত্যেকেরই জন্ম তারিখ ১ জানুয়ারি৷

সাধারণভাবে মাধ্যমিক বা সমতুল্য পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ডকেই জন্ম তারিখের প্রামাণ্য নথি হিসেবে ধরা হয়৷ হাল আমলে অবশ্য ভোটার কার্ডেও সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির জন্ম তারিখের উল্লেখ থাকে৷

আবার মোদির সরকার ক্ষমতায় আসার পর, সারাদেশ জুড়ে প্রত্যেক নাগরিকদের সম্পর্কে আলাদাভাবে তথ্য সংগ্র্হের জন্য চালু হয়েছে আধার কার্ড৷ সেখানেও উল্লেখ থাকে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির জন্মতারিখ৷

কেন্দ্রীয় সরকার ঘোষণা করেছে, এখন প্রত্যেক নাগরিকের আধার কার্ড থাকা বাধ্যতামূলক৷ বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পের সুবিধা পেতে বা কোনও পরিষেবা পেতে হলে এখন ভরসা এই আধার কার্ড৷

কিন্তু সেই আধার কার্ডেই যদি জন্মতারিখে গণ্ডগোল থাকে, তাহলে যে কীরকম বিপাকে পড়তে হয়, তা এখন হাড়েহাড়ে টের পাচ্ছেন এলাহাবাদের খানজাসা গ্রামের বাসিন্দারা৷

উত্তরপ্রদেশের এলাহাবাদের গুরপুরের জেসরা ব্লকের খানজাসা গ্রামে প্রায় হাজার দশেক লোকের বাস৷ জানা যাচ্ছে, দীর্ঘদিন ধরেই গ্রামবাসীদের কারোও আধার কার্ড ছিল না৷ বহু ঘোরাঘুরি পর সম্প্রতি আধার কার্ড পেয়েছেন তাঁরা৷

আর সেই আধার কার্ড মোতাবেক, গ্রামের দশ হাজার মানুষের প্রত্যেকেরই জন্ম হয়েছে একইদিনে৷ ১ জানুয়ারি৷ প্রথমে অবশ্য বিষয়টি কারও নজরে আসেনি৷ উত্তরপ্রদেশের স্কুল পড়ুয়াদের সম্পর্কে তথ্যভাণ্ডার তৈরি করতে আধারকার্ড নথিভুক্ত করার কাজ চলছে৷

সেই কাজ করতে খানাজাসা গ্রামে গিয়েছিলেন স্থানীয় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা৷ তখনই আধার কার্ডে জন্মতারিখ সংক্রান্ত এই ভুলটি নজরে আসে৷ ঘটনা জানাজানিতে হতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন গ্রামবাসীরা৷

গানজাসা গ্রামের প্রধান অবশ্য আশ্বাস দিয়েছেন, জন্ম তারিখ সংশোধন করে গ্রামবাসীদের নতুন আধার কার্ড দেওয়া হবে৷

সূত্রঃ সংবাদ প্রতিদিন

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 17 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)