স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কার্যকরী মেন্থল ওয়েল

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 20th May 17 at 12:25pm 98
Googleplus Pint
স্বাস্থ্য সুরক্ষায় কার্যকরী  মেন্থল ওয়েল

স্বাস্থ্য সুরক্ষা, সৌন্দর্য বর্ধন, ত্বকে পুষ্টি যোগানো, ঠাণ্ডা উপসম, পাকস্থলী পরিপাকসহ নানা গুণে ভরপুর মেন্থল ওয়েল।

অতীতে অনেক দেশেই মেন্থল তেল হারবাল পণ্য তৈরিতে ব্যবহার করা হত।

মেন্থল তেলে রয়েছে এ্যান্টিসেপটিক এবং এ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান। যা শরীরে বলবৃদ্ধি এবং ধীরগতিতে প্রশান্তি দেয়ার ভারসাম্য আনতে সহায়তা করে।

আসুন জেনে নেই মেন্থল ওয়েলের কয়েকটি উল্লেখযোগ্য ব্যবহার-

১। ঠাণ্ডা কমাতে এটা ভীষণ সহায়ক বা কার্যকরী। গরম পানির মধ্যে কয়েকফোঁটা মেন্থল ওয়েল মিশিয়ে শ্বাস নিলে তা ফুসফুসের ভেতরে চলে গিয়ে ঠাণ্ডা কমায়। সাইনাসের ব্যথা এবং খুসখুসে কাশি কমাতেও সাহায্য করে।

২। পেশীর ব্যথা কমাতে সাহায্য করে মেন্থল তেল। মেন্থল তেল ব্যবহারের শুরুতে একটু কষ্টদায়ক জ্বালাপোড়া করলেও পরে তা শীতলঅনুভূতি এনে দেয়। মেন্থল তেল আসলে প্রাকৃতিক ব্যথা উপসমকারী তেল হিসেবে কাজ করে।

৩। যাদের ত্বকে জ্বালাপোড়া ও অ্যালার্জি আছে তারা ঐই স্থানে ল্যাভেন্ডার ওয়েলের সাথে দুফোটা মেন্থল ওয়েল মিশিয়ে লাগান ফলে ত্বকের জ্বালাপোড়া এবং অ্যালার্জির আশংকা দূর হবে। মেন্থল তেল লোশনের সাথেও মিশিয়ে শরীরে ব্যবহার করতে পারেন।

৪। যাদের বদহজম এর অভ্যাস আছে তাদের বদহজম কমাতে এক কাপ গরম পানির সাথে এক ফোটা মেন্থল ওয়েল মিশিয়ে খাবার আগে খেয়ে নিন। এতে বদহজম এর অভ্যাস দূর হবে।

৫। মাথায় প্রায়ই খসখসে ভাব দেখা যায়। প্রতিদিনের ধুলা-ময়লা থেকে এই খসখসে ভাব দেখা যায়। তাই চুল পরিস্কার করার সময় শ্যাম্পুর সাথে দুফোটা মেন্থল মিশিয়ে নিন। এর ফলে মাথার খসখসে ভাব দূর হবে।

৬। প্রতিদিন কম বেশি আমরা সবাই হাঁটাচলা করি। আর এর ফলে পায়ে লেগে থাকে সারাদিনের ধুলাবালি। আর এই ধুলাবালি পরিস্কার করেই রাখা উচিত। পায়ের যত্নে স্কার্ব অথবা ম্যাসেজ ক্রিমের সাথে কয়েক ফোটা মেন্থল ওয়েল মিশিয়ে নিন। ঝকঝকে এবং পরিছন্ন পা পেয়ে যাবেন মুহূর্তেই।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 16 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)