মশলাদার টক-ঝাল কাঁচামরিচের আচার

রেসিপি টিপস 16th May 17 at 12:28am 228
Googleplus Pint
মশলাদার টক-ঝাল কাঁচামরিচের আচার

অনেকেই আছেন, ভাতের পাতে একটা দুটো মরিচ না হলে রুচিই আসে না তাদের। এমন ঝাল ঝাল খাওয়ার ইচ্ছে, সাথে আচারের প্রতি দুর্বলতা থাকলে দেখে নিতে পারেন উত্তর ভারতীয় এই কাঁচামরিচের আচারের রেসিপিটি। ইদানিং যে কড়া রোদ পড়েছে, তা এই আচার তৈরির মোক্ষম সময়!

উপকরণ
- ২২/২৫টি টাটকা কাঁচামরিচ
- ২ টেবিল চামচ সরিষা
- ১ টেবিল চামচ ধনে
- আধা টেবিল চামচ মেথি
- আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
- ২ টেবিল চামচ লবণ
- সিকি কাপ সরিষার তেল
- ১টি বড় লেবুর রস

প্রণালী
১) মশলাগুলোকে আলাদা আলাদা করে তাওয়ায় কম আঁচে টেলে নিন ৪-৫ মিনিট করে। এরপর সরিষা, মেথি এবং ধনে একসাথে গুঁড়ো করে নিন গ্রাইন্ডারে। বেশি মিহি করবেন না।

২) কাঁচামরিচ ধুয়ে নিন। ডাঁটা ফেলে দিয়ে পানি শুকিয়ে নিন। আধা ইঞ্চি করে টুকরো করে নিন। এগুলোকে একটি পাত্রে রাখুন।

৩) এই পাত্রে হলুদের গুঁড়ো এবং লবণ দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে নিন। এরপর এতে মশলার মিশ্রণ দিয়ে মাখিয়ে নিন। সবশেষে লেবুর রস দিয়ে মাখিয়ে নিন।

৪) সরিষার তেল একটি কড়াইতে গরম করে নিন। কড়াই থেকে ধোঁয়া ওঠা শুরু করলে আঁচ বন্ধ করে দিন। গরম তেল কাঁচামরিচ ও মশলার মিশ্রণের ওপর ঢেলে দিন। মিশিয়ে ঠাণ্ডা হতে দিন, ঢাকা দেবেন না।

৫) একটি পরিষ্কার ও শুকনো কাঁচের বোতলে রাখুন এই মিশ্রণ। একটি সুতি কাপড় দিয়ে বোতলের মুখ আটকে রাখুন। কড়া রোদে রাখুন ২-৩ দিন।

তিন দিনের পর থেকে খেতে পারেন এই আচার। শুকনো জায়গায়, রুম টেম্পারচারে কয়েক মাস থাকবে এই আচার। ফ্রিজেও রাখতে পারেন।

টিপস
- আচার আরও বেশিদিন ভালো রাখতে চাইলে সরিষার তেল বেশি করে দিতে পারেন

- অন্য তেলও ব্যবহার করতে পারেন, তবে অলিভ অয়েল নয়

- হালকা বা মাঝারি ঝালের মরিচ দিয়ে এই আচার ভালো হয়

- মশলাগুলো না টেলে ২ দিন কড়া রোদে শুকিয়ে নিতে পারেন

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 29 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)