শরীরে পানিশূন্যতা তৈরি করে যেসব খাবার

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 13th May 17 at 5:26pm 175
Googleplus Pint
শরীরে পানিশূন্যতা তৈরি করে যেসব খাবার

গরমের সময় শরীরে দেখা দেয় ডিহাইড্রেশন বা পানিশূন্যতা। অনেককে হাসপাতালে পর্যন্ত ভর্তি হতে হয়। কারণ আমরা অনেকেই পানিশূন্যতার সঠিক সম্পর্কে সঠিক জ্ঞান রাখি না। আবার মাঝে মাঝে আমরা নিজের অজান্তেই এমন খাবার খেয়ে নেই যা আমাদের দেহে পানিশূন্যতা সৃষ্টি করে। একটু সচেতন হলেই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। আসুন জেনে নেই, কোন কোন খাবার খেলে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দেয়।

১। হাই প্রোটিন ডায়েট

উচ্চমাত্রার প্রোটিনযুক্ত খাবার খাওয়া কারণে ডিহাইড্রেশন হয়। তাই মনে রাখবেন ডিহাইড্রেশন এড়াতে আপনার কার্বোহাইড্রেট ও প্রোটিন গ্রহণের অনুপাত ঠিক রাখা উচিৎ। ঘন প্রোটিন ড্রিংক এড়িয়ে যাওয়া উচিৎ।

২। লবণাক্ত খাবার

উচ্চমাত্রার সোডিয়ামযুক্ত খাবার খেলে শরীরের পানির ভারসাম্য নষ্ট হয়। কারণ লবণ জলগ্রাহী প্রকৃতির শরীর থেকে পানি শোষণ করে নেয় এবং পানি ধরে রাখে ও পেটফাঁপার সমস্যা হয়।

৩। কম কার্বোহাইড্রেট গ্রহণ

ওজন কমানোর জন্য অনেকেই কম কার্বোহাইড্রেট গ্রহণ করে থাকেন। যদিও অনেকেই জানেন না যে এই স্বাস্থ্যকর ডায়েটের ফলেও হতে পারে ডিহাইড্রেশন। যদি আপনি কম কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ খাবার ও সবজি খান তাহলে তা আপনার শরীরের পানি কমিয়ে দিতে পারে। কারণ নিম্ন কার্বোহাইড্রেটের খাবারে পটাশিয়ামের পরিমাণ বেশি থাকে। তাই যদি কার্বোহাইড্রেট খাওয়া কমিয়ে দেন তাহলে আপনার পানি গ্রহণের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে হবে এটি স্মরণ রাখবেন।

৪। ডিপ ফ্রাইড ফুড

ভাজা পোড়া খাবার খেলে আপনার গলা শুষ্ক হয়ে যায় এবং তৃষ্ণা অনুভব করেন আপনি তাইনা? খুব বেশি ভাজা পোড়া খাবার খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী নয়। এছাড়াও মারাত্মক ডিহাইড্রেশনও সৃষ্টি করতে পারে এই অভ্যাসটি।

৫। কফি

আমরা প্রায়ই কফি পান করি এবং এর ও মূত্রবর্ধক প্রভাব আছে। মাত্রাতিরিক্ত কফি পান করলে আপনার তীব্র ডিহাইড্রেশন, মাথাব্যথা ও অন্যান্য উপসর্গ দেখা দিতে পারে। দৈনিক ১১০ মিলিগ্রামের বেশি কফি পান করা উচিৎ নয়।

৬। এনার্জি ড্রিংক

জিমে যান যারা তাদের অনেকেই অনেক দামী এনার্জি ড্রিংক পান করে থাকেন তাদের পারফর্মেন্সের উন্নতির জন্য এবং রিহাইড্রেট থাকার জন্য। যদিও এনার্জি ড্রিংক পান করলে ডিহাইড্রেশন হয়। এনার্জি ড্রিংকে প্রচুর চিনি থাকে যা আপনার অন্ত্রে অস্রাবন চাপ সৃষ্টি করে এবং পানি কমায়। কখনো কখনো এটি অস্রাবন ডায়রিয়া ও সৃষ্টি করতে পারে।

৭। লেবুর রস

এর স্বাস্থ্য উপকারিতা অনেক হলেও যদি আপনি দৈনিক এই পানীয়টি বেশি পরিমাণে পান করেন তাহলে আপনার প্রস্রাবের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। ঘন ঘন প্রস্রাবের ফলে ডিহাইড্রেশনের সমস্যা হতে পারে আপনার। তাই পরিমিত পরিমাণে পান করুন।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 18 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)