গ্রীষ্মে চুল ও ত্বকের আলাদা যত্ন

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 12th May 17 at 9:20am 199
Googleplus Pint
গ্রীষ্মে চুল ও ত্বকের আলাদা যত্ন

এই মৌসুমে চুল ও ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তাই প্রতিদিনই প্রয়োজন বাড়তি যত্ন।

রূপচর্চাবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয় এই মৌসুমে ত্বক ও চুলের বাড়তি যত্ন নিলে ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া সম্ভব।

প্রতিদিন চুল ধোয়ার অভ্যাস বদলে ফেলুন: গরমে অনেকেই প্রতিদিন চুলে শ্যাম্পু করেন। তবে এই অভ্যাস বদলে ফেলার পরামর্শ দেন ভারতীয় একটি স্যালনের পরিচালক তিশা কাপুর খুরানা।

তিনি বলেন, “প্রতিদিন চুলে শ্যাম্পু ব্যবহার করা ঠিক নয়। এতে মাথার ত্বক অতিরিক্ত তেল নিঃসৃত করতে থাকে। ফলে চুল আরও তৈলাক্ত হয়ে যায়। তাছাড়া মাথার ত্বকের প্রাকৃতিক তেল চুলের জন্য উপকারী। তাই অতিরিক্ত শ্যাম্পু করা হলে চুল আরও ক্ষতিগ্রস্ত হয়।”

তেল মালিশ: শ্যাম্পু করার আগে ঘরোয়াভাবে চুলের যত্ন নেওয়ার পরামর্শ দেন ‘দ্যা হিমালয়া ড্রাগ কম্পানি’র প্রধান গবেষক চন্দ্রিকা মহেন্দ্র।

তিনি বলেন, “শ্যাম্পু করার আগে চুলে পছন্দ মতো তেল লাগিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট মালিশ করুন। এরপর কুসুম গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে পানি ঝরিয়ে মাথায় পেঁচিয়ে রাখুন। এতে তেল চুলের গভীরে পৌঁছবে। এরপর সাধারণ তাপামাত্রার পানি দিয়ে ভেষজ শ্যাম্পু ব্যবহার করে চুল ধুয়ে ফেলুন। গরম পানি দিয়ে কখনও চুল ধোয়া উচিত নয় এতে খুশকির সমস্যা বেড়ে যেতে পারে।

চুলের যত্নের অনুষঙ্গ বাছাই: তিশা কাপুর খুরানা চুলের যত্নে জন্য ক্যারটিন, প্যানথেনল, অ্যালোভেরা, মধু, শিয়া বাটার, নারিকেল তেল আছে এমন প্রসাধনী বেছে নেওয়ার পরামর্শ দেন। এই উপাদানগুলো মাথার ত্বকে পুষ্টি জুগিয়ে চুলের স্বাস্থ্য গঠনে সহায়তা করে।

মুলতানি মাটি: এই গ্রীষ্মে ত্বকের যত্নে মুলতানি মাটি বিশেষ উপযোগী।

মুলতানি মাটি প্রাকৃতিক খনিজ ও পুষ্টি উপাদানে ভরপুর। আছে ত্বক শীতলকারী উপাদান। তাই মুলতানি মাটি ত্বক পরিষ্কার করে অসম রং ও কালচেভাব দূর করতে সাহায্য করে। এছাড়াও অতিরিক্ত তেল, ঘাম ও জমে থাকা ময়লা দূর করতেও এই উপাদান দারুণ কার্যকর। তাই এই মৌসুমে অন্যান্য উপকারী উপাদান মুলতানি মাটির সঙ্গে মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করে ব্যবহার করা ত্বকের জন্য উপকারী।

কমলার খোসা: কমলাতে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন সি এবং ক্যারটিন, যা বেশ কার্যকর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে পরিচিত। ত্বকের ক্ষতিকর প্রভাব পুষিয়ে উঠতে সাহায্য করে এই উপাদানগুলো। পাশাপাশি ত্বকের স্বাভাবিক নমনীয়তা ধরে রেখে লোমকূপ পরিষ্কার করতে সাহায্য করে।

এছাড়া প্রাকৃতিক এক্সফলিয়েটর হিসেবে কাজ করা কমলার রস ত্বকে জমে থাকা ময়লা ও বাড়তি তেল দূর করে।

তাজা কমলার খোসা মুলতানি মাটি এবং পরিষ্কার পানির সঙ্গে মিশিয়ে মাস্ক তৈরি করে ব্যবহার করলে উপকার পাওয়া যাবে।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 27 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)