ভেজা কাঠবাদাম খাবেন যে ৮ কারণে

সাস্থ্যকথা/হেলথ-টিপস 2nd May 17 at 10:21am 171
Googleplus Pint
ভেজা কাঠবাদাম খাবেন যে ৮ কারণে

বাদাম খাওয়া ভালো এটা সবাই জানেন। স্বাস্থ্য উপকারিতার দিক দিয়ে অন্য বাদামের চেয়ে কাঠবাদাম এগিয়ে। এতে ভিটামিন, ফাইবার, ম্যাঙ্গানিজ, ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড এবং প্রোটিন থাকে। পুষ্টি উপাদান ছাড়াও কাঠবাদাম খেলে দীর্ঘ সময় পেট ভরা থাকে। কিন্তু বাদাম খাওয়ার সবচেয়ে সঠিক উপায়টি কি আপনি জানেন? কাঠবাদাম কাঁচা খাওয়ার চেয়ে সারারাত ভিজিয়ে রেখে খাওয়াই ভালো। কেন তা জেনে নিই চলুন।

গবেষণা মতে সবচেয়ে বেশি স্বাস্থ্য উপকারিতা পাওয়ার জন্য ভেজা কাঠবাদামের খোসা ছাড়িয়ে খাওয়াই ভালো। কাঠবাদামের বাদামী খোসায় এনজাইম প্রতিরোধী উপাদান থাকে। এতে হজম প্রক্রিয়া প্রভাবিত হয় এবং পুষ্টি উপাদানের শোষণ বাধাপ্রাপ্ত হয়।

যে কোন সময় ভেজা কাঠবাদাম খাওয়া যায়। কিন্তু সকালের নাস্তার পূর্বে ভেজা কাঠবাদাম খাওয়া সবচেয়ে ভালো। এতে পুষ্টি উপাদানের শোষণ ভালো হয়।

প্রতিদিন বাদাম খাওয়া ভালো, কিন্তু কতটি? গবেষণা মতে প্রতিদিন ২২-২৩ টি কাঠবাদাম খাওয়া ভালো। কাঠবাদামে স্বাস্থ্যকর চর্বি থাকে যা ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে এবং খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায়। ২২-২৩ টি কাঠবাদামে ১২ গ্রাম ভালো অসম্পৃক্ত ফ্যাট ও ১৫০ ক্যালোরি থাকে।

• ভেজা কাঠবাদাম খাওয়ার উপকারিতাগুলো হচ্ছে. . .

১। হজমে সাহায্য করে

যখন কাঠবাদাম ভিজিয়ে রাখা হয় তখন এটি লাইপেজ নামক এনজাইম নিঃসৃত করে। ভেজা কাঠবাদামের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হচ্ছে এটি যা হজমে সাহায্য করে।

২। খারাপ কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে

খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমানো ও ভালো কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি করার মাধ্যমে কাঠবাদাম হৃদপিন্ডকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে।

৩। উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে

ভেজা কাঠবাদাম খেলে রক্তে আলফা টোকোফেরল নামক যৌগ বৃদ্ধি পায় যা রক্তচাপের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে অত্যন্ত জরুরী।

৪। ওজন কমতে সাহায্য করে

কাঠবাদামে মনোস্যাচুরেটেড ফ্যাট থাকে যা দীর্ঘ সময় যাবৎ পেট ভরা থাকতে সাহায্য করে এবং ক্ষুধা কমায়। এভাবেই ওজন কমতেও সাহায্য করে কাঠবাদাম।

৫। বয়স বৃদ্ধি রোধ করে

অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে সমৃদ্ধ হওয়ায় ভেজা কাঠবাদাম ফ্রি র‍্যাডিকেলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সাহায্য করে এবং বয়স হওয়া প্রতিরোধ করে।

৬। রক্তের চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে

বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে, কাঠবাদাম রক্তের চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

৭। ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সাহায্য করে

ভেজা কাঠবাদামে ভিটামিন বি ১৭ থাকে যা ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সাহায্য করে। ক্যান্সার রোগীরা প্রতিদিন কাঠবাদাম খেতে পারেন।

৮। জন্মগত ত্রুটি কমতে সাহায্য করে

ভেজা কাঠবাদাম খেলে শরীরে ফলিক এসিডের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। শিশুর যেকোন ধরনের জন্মগত ত্রুটি প্রতিরোধের জন্য এটি অত্যাবশ্যকীয়।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 15 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)