ওজন হারানোর পর ত্বক টানটান করার ২৫ উপায়!

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 1st Feb 17 at 9:41am 442
Googleplus Pint
ওজন হারানোর পর ত্বক টানটান করার ২৫ উপায়!

ওজন হারানোর পর ত্বক পুনরায় টানটান করার প্রচুর উপায় আছে। আর এমনটা করারও অনেক কারণ আছে।

গর্ভধারণ বা এক সঙ্গে অনেক বেশি ওজন হারানোর ফলে ত্বক ঢিলা হয়ে যায়। এখানে রইল ত্বক পুনরায় টানটান করার ২৫টি উপায়।

১. খুব বেশি দ্রুত ওজন কমানোর চেষ্টা করবেন না। বাচ্চা প্রসবের পর চর্বি কমানোর জন্য পর্যায়ক্রমে খাদ্যাভ্যান নিয়ন্ত্রণ করুন।

২. ত্বক দৃঢ় করার ক্রীম বা লোশন ব্যবহার করুন।

৩. খুব বেশি রোদ লাগাবেন না। এতে ত্বক আরো ঢিলা হয়ে যেতে পারে।

৪. খনিজ/লবণের স্ক্রাব ব্যবহার করুন। সামুদ্রিক লবণের স্ক্রাব ব্যবহার করলে রক্তের প্রাবাহ বাড়ে। যার ফলে ত্বক আরো স্বাস্থ্যবান এবং টানটান হয়।

৫. কোলাজেন ক্রীম ব্যবহার করুন।

৬. ম্যাসেজ থেরাপি নিন। সপ্তাহে অন্তত একবার ম্যাসেজ থেরাপি নিন।

৭. স্পা করান। প্রতি ছয় থেকে আট সপ্তাহ পরপর একবার স্পা করান।

৮. ভারোত্তলন প্রশিক্ষণ করুন। জিমে গিয়ে ব্যায়াম করার সময় সপ্তাহে অন্তত তিনবার ভারোত্তলন করুন।

৯. প্রচুর পরিমাণ পানি খান। প্রতিদিন অন্তত ৮ গ্লাস পানি পান করুন।

১০. যোগ ব্যায়াম করুন। যোগ ব্যায়াম আপনাকে মানসিক অবসাদ থেকেও মুক্তি দিবে। আর শারীরিকভাবেও আরো বেশি সক্রিয় করবে।

১১. কাঁচা খাবার খান। রান্না করার ফলে খাবার থেকে অনেক পুষ্টি উপাদান বের হয়ে যায়। সুতরাং প্রতিদিন কিছুটা পরিমাণ কাঁচা খাবার খান।

১২. ক্যালিসথেনিক্স বা শক্তিলাভের ব্যায়াম করুন। এতে হৃদপিণ্ডও ভালো থাকবে। সপ্তাহে অন্তত এক রাউন্ড ক্যালিসথেনিক্স ব্যায়াম করুন।

১৩. চর্বিহীন প্রোটিন খান। খাদ্যতালিকায় চর্বিহীন প্রোটিন যুক্ত করুন।

১৪. ভাজাপোড়া খাবার এড়িয়ে চলুন। এতে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে এবং ত্বকও ভালো থাকবে।

১৫. প্রচুর পরিমাণ ফলমূল এবং শাক সবজি খান। প্রতিদিন অন্তত পাঁচবার তাজা ফলমূল ও শাক সবজি খান।

১৬. সালফেট বা ক্ষারযুক্ত সাবান ব্যবহার এড়িয়ে চলুন। ক্ষারযুক্ত সাবান ত্বকে প্রদাহ বাড়ায় এবং আর্দ্রতা নষ্ট করে। যার ফলে ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা নষ্ট হয়।

১৭. সমুদ্র সৈকতে শুয়ে থেকে ত্বক রোদে পুড়িয়ে তামাটে করবেন না। এতে ত্বক আরো ঢিলা হয়। এবং ত্বকে বেশি রোদ লাগলে ক্যান্সারের ঝুঁকিও বাড়ে।

১৮. ক্লোরিন ধুয়ে পরিষ্কার করুন। সুইমিং পুল এবং হট টাবের অতিরিক্ত ক্লোরিন আপনার ত্বককে আরো শুষ্ক কম স্থিতিস্থাপক করবে এবং পুনরায় টানটান হতে বাধা দিবে।

১৯. লেবুর জুসের সঙ্গে মিশিয়ে ক্যাস্টর অয়েল ব্যবহার করুন। এমনকি ল্যাভেন্ডার অয়েলও ব্যবহার করতে পারেন।

২০. গন্ধসার তেল ব্যবহার করুন। এক্ষেত্রে ল্যাভেন্ডার গন্ধসার তেল সবচেয়ে বেশি ফলদায়ক।

২১. পেটে ত্বক টাইট করার মাস্ক ব্যবহার করুন। সপ্তাহে তিনদিন পেটে ডিমের মাস্ক লেপে দিন। এরপর তা শুকানোর পর পানি দিয়ে ধুয়ে তুলে ফেলুন।

২২. ত্বক টাইট করার সংকোচক ব্যবহার করুন। একটু মধু, কিছুটা রোজমেরি এবং কিছুটা উইচ হ্যাজেল এর মিশ্রণে এই সংকোচক তৈরি করতে পারেন।

২৩. প্রতিদিন পাকস্থলীতে বাদাম তেল মাখুন। এতে আপনার ত্বক কোমল এবং টানটান হবে।

২৪. সয়া প্রোটিন এবং অ্যালোভেরা এমন দুটি জিনিস যেগুলো আপনার ত্বককে সত্যিই স্থিতিস্থাপক এবং টাইট করতে বেশ সহায়ক ভুমিকা পালন করবে। নিয়মিত খাদ্য তালিকায় সয়া প্রোটিন রাখতে পারেন বা সয়াপ্রোটিন থেকে তৈরি ক্রীম ব্যবহার করতে পারেন।

২৫. নিজস্ব প্রক্রিয়ায় পরিষ্কারক তৈরি করুন। চিনি, দুধ এবং কিছু চূর্ণ ফলমূল- যেমন আঙ্গুর, বেরি এবং কমলা থেকে তৈরি ক্লিঞ্জারও আপনার ত্বককে টাইট করতে ভুমিকা রাখতে পারে।

সূত্র: অল ওমেনস টক

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 20 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)