ঝগড়া শেষ করবেন যেভাবে!

লাইফ স্টাইল 22nd Dec 16 at 9:47am 363
Googleplus Pint
ঝগড়া শেষ করবেন যেভাবে!

যে কোনো ধরনের সম্পর্কে মতের অমিল, কথা কাটাকাটি হতেই পারে। তবে সমস্যাটা বাঁধে যখন ঝগড়া শেষ হয় না।

সম্পর্কবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে বিভিন্ন বিশেষজ্ঞদের মতামত তুলে ধরে বলা হয়, ঝগড়া কোনো খারাপ বিষয় নয়। বরং কথা কাটাকাটি সম্পর্কগুলো আরও দৃঢ় করে। এতে সম্পর্কের ছন্দ ঠিক থাকে, আবার নিজেদের মধ্যে থাকা দ্বিধাও দূর করে দেয়।

তাই যে কোনো সম্পর্কের জন্য ঝগড়া খুবই ভালো। তবে মনোমালিন্য পুষে রাখা বা তর্ক বাড়ে এমন কাজ করা সম্পর্কের জন্য খুবই খারাপ।

কোন কাজগুলো করলে ঝগড়াঝাঁটি সুন্দরভাবে শেষ হতে পারে সেই পন্থাও রয়েছে।

দাবী মীমাংসার আগে সন্ধি নয় : একটা বিচ্ছিরি ঝগড়ার পরে সন্ধি করার আসলেই খুব কষ্টকর। তবে সব দাবীর বিষয়ে একটা সিদ্ধান্তে না আসা পর্যন্ত সন্ধি করলে সেটা আরেকটা ঝগড়ার সূত্রপাত ছাড়া কিছুই হয় না। ঝগড়া যখন আসলেই মিটবে তখন সবগুলো অমীমাংসিত বিষয় মীমাংসা করা হয়েছে এই বিষয়ে নিশ্চিত হতে হবে। সব না মিটিয়ে মিলমিশের পরে সবকিছু ঠিকঠাক দেখা যায় বটে। তবে কোথাও এক জায়গায় ছন্দে অমিল থেকেই যায়।

শান্ত হতে সময় দেওয়া : ঝগড়ার পরে সন্ধি করার কোনো তাড়াহুড়ো করার দরকার নাই। দুই পক্ষকেই শান্ত হতে সময় নিতে হবে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যে কোনো সমস্যা সময় নিয়ে ভাবলে সেটার সমাধান সহজ এবং গ্রহণযোগ্য সমাধানের পথে আসে। এর পরে মিলমিশের কথা ভাবা প্রয়োজন।

এমনকি কোনো এক পক্ষ যদি একটু রগচটা হন তবে তাকে শান্ত হতে সময় দেওয়া বিশেষ প্রয়োজন, তখনই তার সঙ্গে কথা চালিয়ে গেলে সম্পর্কের দীর্ঘ মেয়াদী ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। এমনকি সম্পর্ক ভেঙেও যেতে পারে।

ঝগড়াটাকে মুখ্য না করে ফেলা : অনেক সময় আমরা ভুলে যাই ঝগড়াটা আসলেই কী নিয়ে শুরু হয়েছিল। তখন মূল সমস্যা মেটানোর চেয়ে ঝগড়া চালিয়ে যাওয়ার বিষয়েই বা ঝগড়াতে জেতার বিষয়টাই বড় হয়ে যায়। এটা সম্পর্কের জন্য খুবই ক্ষতিকর। এতে যেটা সবচেয়ে খারাপ হয় তা হচ্ছে ঝগড়া মিটে যাওয়ার পরেও রাগের মাথায় বলা কটু কথা সম্পর্কের মাঝে ঠায় দাঁড়িয়ে থাকে। সম্পর্ক সুন্দর রাখতে গেলে সব সময় মনে রাখতে হবে, পুরানো সমস্যা খুঁচিয়ে ঝগড়া করা কোনো ভালো ফল বয়ে আনে না।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 15 - Rating 6 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)