ত্বকের তারুণ্য হারানোর কারণ

রূপচর্চা/বিউটি-টিপস 17th Dec 16 at 12:04am 391
Googleplus Pint
ত্বকের তারুণ্য হারানোর কারণ

সুন্দর ত্বক আর তারুণ্য ধরে রাখতে কে না চায়! এ জন্য নানান প্রসাধনীও ব্যবহার করা হয়। তবে নিজেদের কারণেই ত্বকে অকালেই পড়ে বয়সের ছাপ, হারায় কোমল ভাব।।

অনিয়ম, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস, ধূমপান, অ্যালকোহল গ্রহণ, সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি ইত্যাদি বুড়িয়ে দিচ্ছে আমাদের ত্বক। আর এ কারণেই বয়সের আগেই বলিরেখা পড়া, ত্বকের রংয়ে অসামঞ্জস্যতা ইত্যাদি সমস্যায় ভুগতে হচ্ছে অনেককেই।

স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে এমনই কিছু দৈনন্দিন ভুলের বিষয় উল্লেখ করা হয় যে কারণে ত্বকে বয়সের ছাপ পড়ে।

অপর্যাপ্ত ঘুম: শরীরের বিশ্রামের জন্য যেমন ঘুম প্রয়োজন তেমনি ত্বক সজীব রাখতেও ঘুম জরুরি। রাতে কম ঘুমানোর প্রভাব চেহারায় যে পড়ছে তা হয়ত নতুন করে বলার প্রয়োজন নেই। ভালো ঘুম না হলে দেখতে ক্লান্ত দেখায়। দীর্ঘ দিন পর্যাপ্ত না ঘুমালে চোখের নিচে কালি পড়ে এবং চোখ ভেতরে ঢুকে যেতে পারে। দীর্ঘ সময় এই অনিয়ম চলতে থাকলে ত্বক বুড়িয়ে যেতে পারে অকালেই, তাই প্রয়োজন পর্যাপ্ত ঘুম।

অতিরিক্ত চিনি গ্রহণ: অতিরিক্ত চিনি ও চিনিসমৃদ্ধ খাবার শরীরের জন্য মোটেও ভালো নয়। তেমনি চিনিযুক্ত খাবারগুলো ত্বকেরও ক্ষতি করে। রক্তে অতিরিক্ত শর্করার মাত্রা ত্বকের কোলাজেন ক্ষতিগ্রস্ত করে। তাছাড়া অনেকের চিনির কারণে ত্বকে ব্রণের সমস্যাও দেখা দিতে পারে। তাই নিয়মিত চিনি গ্রহণের পরিমাণে লাগাম টানা জরুরি।

অতিরিক্ত দৌড়ানো: অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো নয়, এই বিষয়টি মনে রাখতে হবে সব ক্ষেত্রেই। স্বাস্থ্য রক্ষার জন্য সব থেকে উপযোগী ব্যায়াম- দৌড়ানো। তবে প্রতিদিন অতিরিক্ত দৌড়ালে চামড়া ঝুলে পড়তে পারে। আর চামড়া ঝুলে গেলে বয়স তো বেশি মনে হবেই।

মদ্যপান ও ধূমপান: ধূমপান ও অ্যালকোহল গ্রহণ শরীরের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর দুটি অভ্যাস। প্রতিদিন এই অভ্যাসের কারণে ত্বকের নিচের শিরাগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হতে থাকে। আর দীর্ঘদিনে পুরোপুরি নষ্ট হয়ে যায়। তাই সুন্দর ত্বক ধরে রাখতে এড়িয়ে চলুন অ্যালকোহল গ্রহণ ও ধূমপান।

রোদে থাকা: ভিটামিন ডি দেহের জন্য ভালো। তবে অতিরিক্ত সময় সূর্যের নিচে থাকলে ঘটতে পারে বিপত্তি। ত্বক স্থায়ীভাবে পুড়ে যাওয়া ছাড়াও তৈরি হতে পারে তিল, পাশাপাশি দেখাতে পারে শুষ্ক ও মলিন।

গরম ও ঠাণ্ডা সব আবহাওয়াতেই সূর্যের আলোয় বেশিক্ষণ থাকা ক্ষতিকর। অনেকে মনে করেন মেঘলা দিনে সানস্ক্রিন ব্যবহার না করলেও চলবে, যা মোটেও সত্যি নয়। তাই এই প্রখর তাপ থেকে সাধের ত্বক বাঁচাতে কমপক্ষে এসপিএফ ৩০ আছে এমন সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে।

যারা বেশি সময় বাইরে থাকেন তাদের আরও বেশি এসপিএফ যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করা দরকার। ঘর থেকে বের হওয়ার ২০ মিনিট আগে সানস্ক্রিন মাখা উচিত।

তাছাড়া ত্বকের তারুণ্য ধরে রাখতে আর্দ্রতা বজায় রাখা জরুরি। শুষ্ক ত্বকে বলিরেখা পড়বে দ্রুত। তাই প্রতিদিন প্রচুর পানি ও পানি সমৃদ্ধ ফল খেতে হবে। রাতে ঘুমানোর আগে মুখ ভালোভাবে ধুয়ে ময়েশ্চারাইজার লাগাতে হবে। প্রচুর শাকসবজি ও পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। কারণ ভিতর থেকে ত্বক সুন্দর রাখাও জরুরি।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 19 - Rating 4 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)