বিরাট পুরুষাঙ্গ! হানিমুনে গিয়ে আতঙ্কে স্বামীর মাথা ফাটালেন যুবতী

ভয়ানক অন্যরকম খবর 30th Oct 16 at 11:42am 2,857
Googleplus Pint
বিরাট পুরুষাঙ্গ! হানিমুনে গিয়ে আতঙ্কে স্বামীর মাথা ফাটালেন যুবতী

ফুল শয্যার রাতে তাঁর সঙ্গে যে এমনটা ঘটবে তা স্বপ্নেও ভাবেননি মোনোম্বো মাদিইবি। এক বছরের প্রেমিকাকে বিয়ের পরই নিয়ে গিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার কফি বে-তে। তবে পর দিনই তাঁকে হাসপাতালে ছুটতে হল। কারণ স্ত্রী তাঁর মাথায় বোতল দিয়ে আঘাত করে তাঁর মাথা ফাটিয়ে দেন।

হঠাত্‍ এমন কাজ করলেন কেন তাঁর স্ত্রী?

মোনোম্বো বলেন, ‘ফোর প্লে পর্যন্ত সব কিছু ঠিকঠাকই ছিল। কিন্তু যখন আমরা মিলনের জন্য প্রস্তুত হই সে সময় স্ত্রী আমার পুরুষাঙ্গ দেখে ভয় পেয়ে যায়। আমার কান কামড়ে ধরে সামনে রাখা একটি ওয়াইনের বোতল দিয়ে সজোরে আমার মাথায় আঘাত করে। তার পর উপহার হিসাবে কিনে আনা একটি টেডি আমার নাকে চেপে ধরে।’

ঘরে হুটোপুটির শব্দে আশপাশের বোর্ডাররা ছুটে আসেন। দরজা খুলে কাণ্ড দেখে তড়িঘড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় মোনোম্বো-কে। পেশায় একজন ফুটবল খেলোয়াড় মোনোম্বো অবশ্য মনে করেন, স্ত্রীকে হনিমুনের জন্য জাঞ্জিবারে নিয়ে যেতে পারেননি বলেই রাগে এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন তিনি।

তবে স্ত্রীর স্বীকারোক্তি অন্য কথা বলছে। তাঁর স্ত্রী বলেন, ‘ওর পুরুষাঙ্গ খুবই বড়। রীতিমতো ভীতিপ্রদ। খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম দেখে। তবে আমি ওকে শুধু চড় মেরেছি। অন্য কিছু করিনি।’

মোনোম্বো জানিয়েছেন, তাঁর স্ত্রীও ফুটবলল খেলোয়াড়। স্থানীয় চার্চে দেখা হয় তাঁদের। এক বছর ঘুরতে না ঘুরতেই বিয়ে করেন তাঁরা। এর মাঝে বহুবার একে অপরের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার ইচ্ছে হলেও তা এড়িয়ে গিয়েছেন। ঠিক করেছিলেন বিয়ের পরেই মিলিত হবেন তাঁরা।

তবে প্রথম রাতেই তাল কাটল। ঘটনার পর দু’ জন আলাদ ভাবে নিজেদের বাড়ি ফিরে গিয়েছেন। তবে কেউই পুলিশের কাছে অভিযোগ জানাতে রাজি নন। তাঁরা চাইছেন, কাউন্সিলরের কাছে গিয়ে নতুন ভাবে আবার জীবন শুরু করতে।

সূত্রঃ এইসময়

Googleplus Pint
Mizu Ahmed
Manager
Like - Dislike Votes 18 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)