Déjà Vu (2006) – আলোচনা

মুভি রিভিউ 30th Jul 16 at 1:59am 1,339
Googleplus Pint
Déjà Vu (2006) – আলোচনা

দেযা ভু অনেকের কাছে মাস্টারপিস এক সিনেমার নাম। আমার নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করার আগে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলতে চাই, দেযা ভু নিয়ে আমি এখন যা বলব, তা এক প্রকার বিশ্লেষণ বা আমার নিজস্ব অভিব্যক্তি। মুভির বিভিন্ন অংশের অসঙ্গতি এবং শেষের অংশ নিয়ে আজ কথা বলব। সেজন্য যে সকল সিনেমাপ্রেমী দর্শক সিনেমাটি দেখেন নি তাদের নিকট আনুরোধ থাকবে লেখাটি না পড়ার জন্য। কারণ তাহলে ভয়াবহ স্পয়লারের জালকে নিজেকে আবদ্ধ করে ফেলবেন।

deja vu যার অর্থ হল পুনরায় দেখতে পাওয়া। deja vu একটি সিস্টেম যা আপনাকে ৪ দিন ৬ ঘন্টা আগের অতীতকে আপনার নিকট দেখাবে। তার মানে আপনি চাইলে সে সময় কে কিভাবে কি কাজে নিয়োজিত ছিল, তার পুরো অবস্থা আপনি দেখতে পারবেন। একটি ফেরিতে বোম ব্ল্যাষ্ট ও সে অপরাধীকে খুঁজে বের করার জন্য এফ বি আই এর সদস্যা এই নতুন সিস্টেম টি ব্যবহার করবে। যেখানে দেখা মিলবে এটিএফ এজেন্ট ডগ ক্যারলিন এর, যিনি কি না ফেরি দূর্ঘটনার উপর আলোকপাত না করে আলোকপাত করবেন তার ঠিক একঘন্টা আগে মৃত ক্লারি নামক এক মেয়ের হত্যকান্ডের উপর। সেখান থেকেই মূলত কাহিনীর জট খুলতে শুরু করে।



আর ঠিক তখন থেকেই আমার এই সিনেমা নিয়ে প্লট হোল চোখে পরতে থাকে। শুরু করা যাক তাহলে-

১. মেয়েটির পোষ্ট মর্টেম করার সময় ক্যামেরাতে যেদিক থেকে ছবি তোলা হল আর প্রিন্টের ছবির এঙ্গেল এক ছিল না। বুঝলাম না কেন?

২. অতীত দেখার সময় বারবার বল হচ্ছে এটি একটি কন্টিনিওয়াস মানে চলমান প্রক্রিয়া কোন ইমেজ বা দৃশ্যকে স্থির করে দেখার সুযোগ নেই। তাহলে পরের দৃশ্যতে কিভাবে দৃশ্য স্থির করে দেখা হল, পিছনে ভিডিও নিয়ে গেলো? বুঝলাম না কি করল ……

৩. মেয়েটি মারা গিয়েছিল এবং তার শেষকৃত্য অনুষ্ঠিত হল, এছাড়া যিনি সেই সিস্টেমটি চালাচ্ছিল তিনি বলল মেয়েটি মারা গেছে এবং চাইলেও তাকে ব্যাক করানো যাবে না। পয়েন্ট টু বি নোটেড… কিন্তু কিছুক্ষণ পর তিনি আবার বললেন মেয়েটি জীবিত কিভাবে বুঝলে মেয়েটি জীবিত? তখনো ক্যারলিন মেয়েটিকে বাঁচানোর জন্য অতীতে ফিরে যায়নি… তাহল কি করে সে জানল? বুঝলাম না………

৪. ক্যারলিন মেয়েটির বাসায় গ্লাভস পড়ে গিয়েছিল, তাহলে তার হাতের ছাপ সারা ঘরে কি করে গেল? যদি বলেন শেষ দৃশ্যের কারণে, ওকে ঠিক আছে মানলাম এখানে আবার ফিরে আসব।

৫. অতীতে যে ঘটনা ঘটছে তার বর্তমানের কেউ তা অবলোকন করছে। তারা কি করে সেটা উপলব্ধি করছে? উত্তর আমি খুঁজে পাই নি…… কারণ যদি বলে ঐসময়ে হয়তো ঐটা ঘটেছে তাই। তাহলে কি ঐ অতীতেও কি তাকে কেউ অবলোকন করছিল?

৬. এবার আসি এন্ডিং এ। এন্ডিং এ নেই কোন যথাযত ব্যখ্যা। মনে হল মনে যা চেয়েছে তা দিয়ে শেষ করতে পারলেই বেঁচে যায়। মেশিনে ঢুকে ৪ দিন ৬ ঘন্টা অতীতে চলে যায় ক্যারলিন। বাঁচাতে হবে মেয়টিকে। কিন্তু নিজে পানিতে ডুবে মারা যায়। আমার কথা হল গাড়ির সামনের গ্লাস ভেঙ্গে মেয়েটিকে বের করতে পারল কিন্তু নিজে বের হতে পারল না? আবার দেখা গেলো ক্যারলিন আবার ফিরে এসেছে শেষ দৃশ্যতে। তাহলে কি তারা অতীতে থেকে গেলো? তাহলে বর্তমান এর কি হল? পুরো পৃথিবী কি ৪ দিন ৬ ঘন্টা পিছিয়ে গেল? কারণ এটি তো কোন লুপ নয় যে আবার হবে। এবার ৪ নং পয়েন্ট টা চিন্তা করেন……।

৭. মুভির প্রথমে হালমাকারী কে বলা হল প্রধান দোষী, ওয়েট এ সেকেন্ড ব্রাদার সেই হামলাকারী শেষদিকে কি করে প্রধান উইটনেস হল? দোষী কে তাহলে?

এছাড়া প্রচুর দৃশ্যের অমিল, কস্টিউমের সমস্যা সহ ভুলে ভরা একটি সিনেমা হল দেযা ভু। টান টান উত্তেজনা দিয়ে দর্শকদের আটকে রেখেছে সেটা ঠিক কিন্তু এমন সাইন্টিফিক সিনেমাতে নেই কোন সাইন্টিফিক এডিং বা যথাযত উপসংহার। অনেকে খুশি হতে পারলেও আমি ব্যক্তিগত ভাবে খুবই হতাশ। সাউথ ইন্ডিয়াতে তামিল ভাষায় নির্মিত মুভি ’24’ এর মত এর সবকিছু। এমন সিনেমা আমার কাছে মোটেই মাস্টারপিস বা মাস্ট ওয়াচ এর কিছু না। নির্মাণ, প্রযুক্তি ও কলাকৌশলের দিক থেকে দেযা ভু প্রথম দিকের হলেও কাহিনী ও দূর্বল ব্যাখ্যা মুভিটিকে ওয়েস্ট করে দিয়েছে। আমার রেটিং ২/৫ ।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 28 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)