আজকের ধাঁধা : ২১ জুলাই ২০১৬

বাংলা ধাধা 21st Jul 16 at 9:12am 1,250
Googleplus Pint
আজকের ধাঁধা : ২১ জুলাই ২০১৬

ধাঁধা :

১. গফুর মিয়ার গরু চুরি হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করতে হাজির হলো বিশিষ্ট গোয়েন্দা হাবিব। সন্দেহভাজন পাঁচজন— আলম, বশির, চান্দু, ডাব্বু আর এমদাদকে গোয়েন্দার সামনে হাজির করা হলো। হাবিবের প্রশ্নে সন্দেহভাজনরা যা বলল, তা এ রকম:

আলম: এমদাদ চোর নয়। চোর হলো বশির।

বশির: চান্দু চোর নয়। এমদাদও চোর নয়।

চান্দু: এমদাদ ব্যাটা চোর। আলম চোর নয়।

ডাব্বু: চান্দু চোর। বশিরও চোর।

এমদাদ: ডাব্বু হলো আসল চোর। আলম চুরি করেনি।

গোয়েন্দা জানে, এদের প্রত্যেকেই একটা সত্য কথা আর একটা মিথ্যা কথা বলেছে। এখন বলুন, কে আসল চোর?

২. বাবুল মিয়া থাকেন একটা অ্যাপার্টমেন্টের ৩২ তলায়। লিফটে সাধারণত তিনি ২৬ তলায় নেমে যান। বাকি ৬ তলা সিড়ি দিয়ে হেঁটে ওপরে ওঠেন। শুধু বৃষ্টির দিনে এই ঘটনার ব্যতিক্রম হয়। বৃষ্টির দিনে তিনি লিফটে ৩২ তলায় গিয়েই নামেন। কেন?

৩. তিনটি ঘর। যেকোনো একটা ঘরে আপনাকে ঢুকতে হবে। প্রথম ঘরের ভেতর দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে। দ্বিতীয় ঘরে বন্দুক হাতে অপেক্ষা করছে একদল ভয়ংকর ডাকাত। তৃতীয় ঘরে আছে দশটা সিংহ, যেগুলো তিন বছর ধরে কিছু খায়নি। কোন ঘরটা আপনার জন্য নিরাপদ?

উত্তর :

১. আসলে চুরিটা করেছে চান্দু।

২. বাবুল মিয়া লোকটা এতই খাটো যে লিফটে ৩২ নম্বর বোতাম পর্যন্ত তার হাত পৌঁছায় না। ২৬ নম্বর বোতাম পর্যন্ত তার হাত পৌঁছায়। তাই তিনি ২৬ তলায় নামেন। বৃষ্টির দিনে তার হাতে ছাতা থাকে। ছাতা দিয়ে তিনি ৩২ নম্বর বোতাম চাপতে পারেন।

৩. তৃতীয় ঘর। কারণ তিন বছর না খেয়ে সিংহগুলো নিশ্চয়ই আর বেঁচে নেই!

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 15 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)