দেখে নিন ফেসবুকে যে সকল জিনিস শেয়ার করবেন না

ফেসবুক টিপস 15th Jul 16 at 2:26am 2,414
Googleplus Pint
দেখে নিন ফেসবুকে যে সকল জিনিস শেয়ার করবেন না

ফেসবুক সকলের জীবনেরই অংশ হয়ে গেছে৷ একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগেরই এরটি সবচেয়ে ভাল মাধ্যম৷ এর মাধ্যমেই আমরা আমাদের বিভিন্ন কথা বকলের সঙ্গে শেয়ার করি৷ বেশির লোকই মনে করেন তারা যা শেয়ার করছেন সেগুলি নিজের বন্ধুদের জন্য কিন্তু কেউ অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে অন্য কেউ এটি পড়ছে কিনা তা জানা যায়না৷ এই কারণেই পাঁচটি কথা এমন রয়েছে যা কখনই ফেসবুকের স্টেটাসে শেয়ার করবেন না৷

নিজের ও পরিবারের পূর্ণ জন্ম তিথি: জন্মদিনের দিন ফেসবুকে প্রত্যেকেই হাজারো শুভেচ্ছা বার্তা পান যা সত্যিই মন ভাল করে দেয়৷ কিন্তু জানেন কি নিজের জন্ম তিথি ফেসবুকে শেয়ার করে আপনি আপনার একটি গোপণ তথ্য সাইবার চোরদের জানিয়ে দিচ্ছেন? যদি ফেসবুকে নিজের জন্ম তারিখ লিখতেই হয় তবে জন্ম সাল একেবারেই লিখবেন না৷

রিলেশনশিপ স্টেটাস: আপনি রিলেশনশিপে আছেন কিনা তা ফেসবুকে একেবারেই শেয়ার করবেন না৷ এতে কেউ যদি আপনার উপর নজর রেখে থাকে তবে সে জেনে যাবে আপনি কখন সিঙ্গেল রয়েছেন এবং কখন রিলেশনশিপে রয়েছেন৷ এতে আপনার বিপদের সম্ভাবনা বাড়তে পারে৷

নিজের বর্তমান অবস্থান: বেশকিছু লোক প্রত্যেকটা জিনিষ ফেসবুকে আপডেট করেন৷ তারা বেশির ভাগ সময়েই কোথায় রয়েছেন তাও লোকেশনের সঙ্গে ট্যাগ করে দেন৷ এতে সকলেই জানতে পারেন আপনি কখন কোথায় রয়েছেন৷ যদি আপনি জায়গায় নাম ট্যাগ করে লিখে দেন যে ছুটিতে যাচ্ছেন তবে আপনার ক্ষতি করার কথা যদি কেউ ভেবে থাকে তবে সে আপনার সম্পর্কে গোটা তথ্যটাই পেয়ে যাবে৷ নিজের ছুটির কথা ও ছুটির ছবি অবশ্যই ফেসবুকে শেয়ার করুন কিন্তু তা অবশ্যই বাড়ি ফেরার পর৷

আপনি বাড়িতে একা আছেন: অভিভাবকেরা অবশ্যই খেয়াল রাখবেন যাতে আপনার সন্তান ফেসবুকে বাড়িতে একা থাকার কথা যেন কখনই না শেয়ার করে৷ এতে অজ্ঞাত পরিচয়ের লোকেরা এই খবরটি পেয়ে যাবে এবং তারা এই সুযোগের দুর্ব্যবহার করতেই পারে৷

নিজের বা সন্তানের ছবি তাদের নামের সঙ্গে ট্যাগ করা: বেশির লোকই তাদের সন্তানের ছবি নাম দিয়ে ট্যাগ করে পোস্ট করেন৷ কিছু অভিভাবক সন্তানের জন্মের পরই তার ছবি হাসপাতালের ঠিকানা লিখে স্টেটাস আপডেট করেন৷ বন্ধু, আত্মীয়দের ছবিও অনেকেই পোস্ট করেন ও ট্যাগ করেন৷ এটা একেবারই ঠিক নয়৷ ফেসবুকে ছবি আপলোড করলেও চেষ্টা করবেন সেটি অন্য কাউকে ট্যাগ না করার৷

Googleplus Pint
Jafar IqBal
Administrator
Like - Dislike Votes 23 - Rating 6 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)