বাবা ও মা শব্দ কোথা থেকে এল, জানেন?

জানা অজানা 20th Jun 16 at 3:47am 781
Googleplus Pint
বাবা ও মা শব্দ কোথা থেকে এল, জানেন?

এমন মধুর শব্দ যে আর কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না। বাবা ও মা শব্দ কোথা থেকে এল এবার তা-ই জেনে নিন।

জিনিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মা শব্দের মতো বাবা ডাক নিয়ে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের মধ্যে তেমন উল্লেখযোগ্য মিল খুঁজে পাওয়া যায় না।

বাবা ডাকের ইংরেজি শব্দ papa। রাশিয়ান, হিন্দি, স্প্যানিশ ভাষায়ও পাপা ব্যবহৃত হয়। জার্মান ভাষায় পাপি। আইসল্যান্ডের ভাষায় পাব্বি। সুইডিশ ভাষায় পাপ্পা।

তুর্কি, গ্রিস এবং মালয় ভাষাসহ আরো অনেক ভাষায় ব্যবহৃত হয় বাবা। শিশুরা যখন প্রথম ভাঙা ভাঙা কথা বলতে শুরু করে, সেই সময়ই তারা মা-বাবা শব্দ দুটি উচ্চারণ করে অনায়াসেই।

এর কারণ হিসেবে অনেকে বলেন, শিশুরা যখন প্রথম কথা
বলতে শেখে তখন ম, ব, দ, ত এই রকম সহজ উচ্চারণের ব্যঞ্জনবর্ণগুলো উচ্চারণ করতে পারে আগে।

তাই তারা সহজেই তাদের প্রথম উচ্চারিত শব্দ হিসেবে মা, বাবা, দাদা এগুলো উচ্চারণ করে থাকে।

আজ প্রাসঙ্গিক তাই বলা, মা শব্দটির ইংরেজি প্রতিশব্দ mom, যা আগে ব্যবহৃত শব্দ mamma- এর পরিবর্তিত রূপ।

বলা হয়, ইংরেজি শব্দ মাম্মা এসেছে ল্যাটিন শব্দ mamma থেকে, যা স্তন বোঝতে ব্যবহৃত হতো। এ শব্দ থেকে mammel শব্দটির উৎপত্তি, যা কি-না স্তনপায়ী প্রাণীর ইংরেজি শব্দ।

তবে মজার বিষয় হলো- পৃথিবীর প্রায় সব দেশেই মাকে বোঝাতে ব্যবহৃত শব্দগুলোর উচ্চারণ প্রায় কাছাকাছি।

আর সবগুলো শব্দের শুরুতেই ব্যবহৃত হয়েছে এম অথবা ম ব্যঞ্জনবর্ণ। উদাহরণ দিলেই বোঝা যাবে। জার্মান ভাষায় মাট্টার (Mutter), ওলন্দাজ ভাষায় ময়েদার (Moeder), ইতালির ভাষায় মাদর (Madre), চীনা ভাষায় মামা (Mama), হিন্দি ভাষায় মাম (Mam), প্রাচীন মিসরীয় ভাষায় মাত (Mut) এবং আফ্রিকার বিভিন্ন ও বাংলা ভাষায় মা (Ma)।

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের বিভিন্ন ভাষায় ব্যবহৃত মা ডাকের শব্দগুলোর মধ্যে উচ্চারণগত এ মিল কীভাবে ঘটল তা এক রহস্য।

তবে ভাষাবিদরা বলেন, শিশুরা যখন তার মায়ের দুধ পান করে, তখন তারা তাদের মুখভর্তি অবস্থায় কিছু শব্দ করে। সেই শব্দগুলো নাক দিয়ে বের হয় বলে উচ্চারণগুলো অনেকটা ম-এর মতো শোনা যায়।

তাই প্রায় সব ভাষাতেই মা ডাকে ব্যবহৃত শব্দগুলো ম বা এম দিয়ে শুরু হয়। তবে বাবার ক্ষেত্রে এমন কোনো যুক্তি সেভাবে নেই।

Googleplus Pint
Like - Dislike Votes 14 - Rating 5 of 10

পাঠকের মন্তব্য (0)